The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বাড়িতে সিংহ পালন: শেষ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ! [ভিডিও]

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কুকুর, বেড়াল বা পাখি নয়, তার শখ সিংহ পোষা। সরকার সেই সিংহ নিয়ে গেছে বলে রাগ হয় তার। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী হস্তক্ষেপ করে সিংহ মালিকের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা জানান। আশ্চর্যজনক এই ঘটনা ঘটেছে কাম্বোডিয়ায়।

বাড়িতে সিংহ পালন: শেষ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ! [ভিডিও] 1

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, সম্প্রতি টিকটকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। সেখানে দেখা যায় যে, কাম্বোডিয়ার রাজধানী নম পেনের এক বিলাসবহুল বাড়িতে সিংহের সঙ্গে খেলা করছেন জনৈক ব্যক্তি। ভিডিওটি দেখার পর ভয় পেয়ে যান ওই বাড়ির আশেপাশের প্রতিবেশীরা। তারা খবর দেন স্থানীয় প্রশাসনকে। প্রশাসন এসে চীনা নাগরিক কি শিয়াওয়ের বাড়ি হতে সিংহটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যান।

প্রশাসন জানায় যে, ওই সিংহটি বিদেশ থেকে অবৈধভাবে নিয়ে আসা হয়েছে। তার বয়স মাত্র ১৮ মাস। সিংহটির ওজন ৭০ কেজি। তার চোয়ালের হার ভাঙা। গত ২৭ জুন ওই বাড়ি থেকে সিংহটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় প্রশাসন।

প্রশাসন মালিককে জানিয়ে দেন যে, কাম্বোডিয়ায় বাড়িতে বাঘ-সিংহের মতো বন্য প্রাণী রাখা সম্পূর্ণভাবে বেআইনি। সে কারণেই তার কাছ থেকে ওই সিংহটিকে বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছে। তবে প্রশাসনের এই কাজের পর ভেঙে পড়েন সিংহটির মালিক। সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও তিনি একটি ভিডিও পোস্ট করেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, কী ভাবে সিংহটিকে খাওয়াতেন তিনি। ওই দৃশ্য দেখার পর রাস্তায় নেমে পড়েন একাধিক পশুপ্রেমী সংস্থা। তারা সরকারের কাছে আবেদন জানান, সিংহটিকে মালিকের কাছে আবার ফিরিয়ে দেওয়া হোক। শেষ পর্যন্ত স্বয়ং কাম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করেন। তিনি সিংহটিকে আবার ফিরিয়ে দেওয়ার অনুমতি দেন। তবে মালিককে বলা হয়, সিংহটির জন্য একটি ভালো উন্নতমানের খাঁচা বানাতে হবে। যাতে করে তার বাড়ির লোক ও এলাকার মানুষ সুরক্ষিত থাকেন।

এই ঘটনার পর বেশ কিছু পশুপ্রেমী সংগঠন খুশি হলেও দুশ্চিন্তাও প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কাম্বোডিয়ায় কর্মরত যুক্তরাজ্যের দূত টিনা রেডশ টুইটে লিখেছেন যে, ‘এর ফলে বেআইনি পশু চালানকেই মান্যতা দেওয়া হয়েছে। যারা এই ধরনের কাজ করে তাদের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। যে কারণে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের বিষয়টিই উপেক্ষা করা হলো।’

আইনকে উপেক্ষা করে কেনোই বা প্রধানমন্ত্রী সিংহটি মালিকের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিলেন, তা নিয়ে অনেকেই সরবও হয়েছেন। বন্যপ্রাণী বাঁচানো ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের বিষয়টি আবারও সামনে চলে এসেছে।

ইতিপূর্বে থাইল্যান্ডের মন্দির হতে বহু বাঘ উদ্ধার করা হয়। জানা যায়, কীভাবে ওই বাঘেদের উপর অত্যাচার করা হতো মন্দিরে, সে ক্ষেত্রে থাইল্যান্ডের সরকার কড়া পদক্ষেপও নিয়েছিল। কম্বোডিয়াতেও সেই একই পথ অনুসরণ করা উচিত ছিল বলে মনে করছেন অনেকেই।

দেখুন ভিডিওটি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...