ফেলানী হত্যায় অভিযুক্ত বিএসএফ সদস্য নির্দোষ বলে রায়!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ বহুল আলোচিত বাংলাদেশ সীমান্তে বাংলাদেশের মেয়ে ফেলানী হত্যার দায়ে অভিযুক্ত বিএসএফ সদস্য নির্দোষ বলে রায় দিয়েছে ভারতের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর নিজস্ব বিশেষ আদালত।


Felani is not the end

বিবিসি বাংলায় রিপোর্টে জানানো হয় ফেলানী হত্যায় অভিযুক্ত বিএসএফ সদস্য নির্দোষ বলে রায় দেয়ার পর ঐ বিএসএফ সদস্যকে মুক্তি দেয়া হয়েছে, অভিযুক্তের নাম হাবিলদার অমিয় ঘোষ তিনি বিএসএফ ১৮১ নম্বর ব্যাটালিয়নের হাবিলদার হিসেবে দায়িত্বরত।

এই রায়ের বিষয়ে অবশ্য বিএসএফ আন্ত বাহিনীর পক্ষ থেকে এখনো আনুষ্ঠানিক কোন বিবৃতি প্রদান করা হয়নি।

এদিকে বিবিসির ঐ সংবাদ সূত্রে জানা যায় সম্পূর্ণ রায়টি চূড়ান্ত অনুমদনের জন্য বাহিনীর মহাপরিচালকের কাছে পাঠানো হবে। এর পর এ বিষয়ে বিএসএফ বিবৃতি দিবে।

অগাস্টের ১৩ তারিখ থেকে চলে আসা এই বিচার প্রক্রিয়াতে অংশ নেন পাঁচজন বিচারক এবং সম্পূর্ণ বিচার প্রক্রিয়া পরিচালনা করেন বিএসএফের গুয়াহাটি ফ্রন্টিয়ারের ডি আই জি কমিউনিকেশনস সি পি ত্রিবেদী।

12

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে কুড়িগ্রামের অনন্তপুর-দিনহাটা সীমান্তের খিতাবেরকুঠি এলাকায় ০৭ জানুয়ারি ২০১১ সালে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ-এর সদস্যরা ফেলানী খাতুন (জন্ম:১৯৯৬ সাল) নামের এক কিশোরীকে গুলি করে হত্যা করে। ফেলানী খাতুন উক্ত সময় ভারত সীমান্ত থেকে কাঁটা তাঁরের বেড়া টোপকে নিজ দেশে ফিরে আসতে চেয়েছিলেন। ফেলানী হত্যার সেই নৃশংস ঘটনা সে সময় সম্পূর্ণ বাংলাদেশকে নাড়া দিয়েছিল এখনো সেই কষ্টের দাগ কোটি বাংলাদেশী ভুলেনি।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...