সর্বদলীয় সরকারের মন্ত্রী পরিষদের শপথ গ্রহণ

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ অবশেষে বিএনপিকে ছাড়াই নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠন করা হয়েছে। এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে নবনির্বাচিত মন্ত্রী পরিষদের সদস্যদের শপথ করান প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ।

Bangabhaban-009

আজ সোমবার বিকেলে অন্তর্র্বতীকালীন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেন। সরকারে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ ছাড়াও জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টির এমপিরা এই মন্ত্রী পরিষদে রয়েছেন। বঙ্গভবনের দরবার হলে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এডভোকেট ৩টা ১০ মিনিটে মন্ত্রীসভার সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান।

মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিচ্ছেন আওয়ামী লীগের আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমদ, ওয়ার্কাস পাটির্র রশেদ খান মেনন, জাতীয় পার্টির রওশন এরশাদ, আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, রুহুল আমিন হাওলাদার, সালমা ইসলাম, মজিবুল হক চুন্নু ও জিয়াউদ্দিন বাবলু। অনুষ্ঠানে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় পার্টির চেয়াম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ উপস্থিত ছিলেন।

নির্দলীয় নির্বাচনকালীন অন্তবর্তী সরকারে নতুন মুখ হিসেবে রয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাতীয় পার্টির রওশন এরশাদ, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন বাবলু, এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, মুজিবুল হক চুন্নু।

মন্ত্রী পরিষদে পুরনোদের মধ্যে কে কে আছেন সে বিষয়ে এখনও কিছু বলা হয়নি।

উল্লেখ্য, এর আগে বেলা ১১টায় বনানীর কার্যালয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকারে যোগ দেবে বলে ঘোষণা দেন। তবে সেই সঙ্গে মহাজোট থেকে বেরিয়ে আসার ঘোষণাও দেন। এরশাদ মহাজোট ছাড়লেও নতুন জোট গঠনের কাজ তিনি অব্যাহত রাখবেন। এরই মধ্যে তিনি বিকল্প ধারার চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী ও জেএসডির আ স ম আবদুর রবের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তাঁদের শর্ত মোতাবেক আগে মহাজোট ছেড়েই নতুন জোট গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করবেন এরশাদ। গতকাল তিনি হেফাজতে ইসলামের আমিরের সঙ্গেও দেখা করে তাঁর দোয়া নিয়েছেন।

Advertisements
Loading...