The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ঈশ্বরদীর প্রাচীন সুড়ঙ্গে প্রত্নতত্ত্ব টীম : ব্রিটিশ আমলে নির্মিত একটি রাজবাড়ী ছিল এখানে

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি ॥ ঈশ্বরদীর আবিষকৃত প্রাচীন সুড়ঙ্গ স্থল পরিদর্শন করেছেন রাজশাহীর একটি প্রত্নতত্ত্ব টীম। গতকাল বুধবার দুপুরে তারা ঈশ্বরদী উপজেলাধীন লক্ষ্মীকুণ্ডায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তারা বলেছেন, ব্রিটিশ আমলে নির্মিত একটি রাজবাড়ী ছিল এখানে।


ancient tunnel Search

মারিটর প্রায় ২৫ ফুন নীচে নীলকুঠির ধ্বংসাবশেষ এই সুড়ঙ্গটি সমপ্রতি আবিষকৃত হয়। লক্ষ্মীকুণ্ডা ইউনিয়নের নূরুল্লাপুর গ্রামের এক ব্যক্তি নিজ বাড়িতে পুকুর খোড়ার সময় এই প্রাচীন নির্দনের সন্ধ্যান পান। এ খবর অত্র এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমাতে থাকেন প্রাচীন এই নিদর্শন এক নজর দেখার জন্য। ওই দিনই ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পুলিশ মোতেয়ন করেন। সরকারি প্রত্নতত্ত্ব আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন তিনি।

সেই মোতাবেক গতকাল রাজশাহী বিভাগ প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক বদরুল আলমসহ ৩ সদস্যের একটি পরিদর্শন টীম ঈশ্বরদীর লক্ষ্মীকুণ্ডার ওই নিদর্শন এলাকা পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন টীমের অন্য সদস্যরা হলেন প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের সার্ভেয়ার লোকমান হোসেন ও ফটোগ্রাফার আবুল কালাম আজাদ।

ঘটনাস্থাল পরিদর্শন শেষে বদিউল আলম সাংবাদিকদের জানান, এখানে ব্রিটিশ আমলে নির্মিত একটি রাজবাড়ী ছিল। এই রাজবাড়ী এখন থেকে অন্তত ২শ’ বছর আগে ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। ৫ ফুট চওড়া ও ৭০ ফুট লম্বা এই সুড়ঙ্গপথটি রাজবাড়ী থেকে পুকুরের সঙ্গে যুক্ত ছিল। তিনি এ বিষয়ে আরও বলেছেন, তারা রাজবাড়ীর মেঝে, বিভিন্ন সাইজের ইট, প্রাচীরের ধ্বংসাবশেষ ও সেই সময়ের একটি পারফিউমের বোতল থেকে আলামত সংগ্রহ করেছেন। তিনি বলেন, এই পুরাকীর্তি খননের পর গবেষণা করলে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।

বদিউল আলম জানান, বিষয়টি সম্পর্কে প্রাথমিক রিপোর্ট প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের মহাপরিচালক মহোদয়ের কাছে রিপোর্ট পাঠানোর পর এটি সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। তিনি জানান, প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের পক্ষ থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত পুকুরে খনন বন্ধ রাখা ও পুরো এলাকা সংরক্ষণের জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্থানীয় সাংবাদিক সেলিম সরদার ঢাকা টাইমস্‌কে জানান, এ ঘটনার পর ওই প্রাচীন নিদর্শন এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। তবে প্রতিদিন শত শত মানুষ ভিড় করছেন প্রাচীন এই নিদর্শন দেখার জন্য। সরকারের এই সংশ্লিষ্ট বিভাগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিলে হয়তো ইতিহাসের প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শনের আরেকটি স্বাক্ষী হবে এটি। ঈশ্বরদীর মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পর্যটনের আরও একটি পথ সুগম হবে বলে স্থানীয়রা মনে করছেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...