The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

স্মার্ট বালিশঃ নাকডাকা সমস্যার একটি কার্যকর সমাধান!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ অনেক লোক রাতে নিদ্রাহীনতায় ভোগে কারণ তারা তাদের সঙ্গীর নাকডাকার শব্দে জেগে উঠে। কিন্তু এখন স্মার্ট বালিশ আপনাকে গোলমালপূর্ণ নাকডাকার শব্দ থেকে রক্ষা করবে আর শান্তিপূর্ণভাবে ঘুমোতে সাহায্য করবে।


Smart pillow -2

স্মার্ট বালিশ, ঘুমের মধ্যে যারা নাকডাকে তাদের নাকডাকার সময় আলতোভাবে অবস্থান পরিবর্তন করতে সাহায্য করবে কিংবা মৃদু শব্দে তাকে জেগে তুলবে। স্মার্ট বালিশ একটি মাইক্রোফোনের সাথে সমন্বিত প্রক্রিয়ায় কাজ করে যা নাকডাকার শব্দতরঙ্গের স্পন্দন ধারণ করে। তারপর এর ভেতরের বায়ুপূর্ণ ব্যাগটি ফুলে উঠে যা তিন ইঞ্ছি উচু হতে পারে। প্রস্তুতকারকরা মনে করেন একজন ঘুমন্ত ব্যক্তির মাথা ও শরীরের নড়াচড়ার জন্য এটি যথেষ্ট।

Smart pillow -3

আপনার উপযোগী অবস্থায় শোয়ার ফলে নাকডাকা অনেকটা হ্রাস পায়। কারণ এর ফলে গলায় জিহ্বার গোঁড়া আটকে যায় না এবং আপনার শ্বাস-প্রশ্বাসে বাঁধা সৃষ্টি করে না, স্মার্ট বালিশ ব্যক্তিকে সে উপযোগিতা প্রদান করবে। বালিশের উচু হয়ে থাকা অংশের ফলে একজন ঘুমন্ত ব্যক্তির বায়ু চলাচলের রাস্তা সমুন্নিত থাকে। একজন ব্যক্তির পুরোপুরি ঘুমিয়ে পড়ার আগ পর্যন্ত বালিশটি ৩০ মিনিট সময় নেয়। হালকা কিংবা ভারী নাকডাকা শুরু হওয়া মাত্র বালিশটি ব্যক্তির উপযোগিতা অনুসারে ফুলতে শুরু করে এবং মাইক্রোফোনের সংবেদনশীলতা চালু হয়।

snore-pillow-pz

স্মার্ট বালিশটির একপাশে থাকা একগুচ্ছ নরম বাটনের মাধ্যমে ব্যবহারকারী নিজের ইচ্ছে মতো বালিশটি সংবেদনশীলতা এবং উপযোগীতা চালু করেন। হালকা নাকডাকার জন্য ব্যবহৃত হয় উচ্চ সংবেদনশীলতা আর ভারী নাকডাকার জন্য নিম্ন সংবেদনশীলতা। এছাড়াও বালিশটি ব্যক্তির ইচ্ছে মতো ম্যানুয়ালি চার থেকে সাত ইঞ্ছি ফোলানো যায়। স্মার্ট বালিশটি পলিথিন দ্বারা পূর্ণ এবং উপরের কভারটি পলিএস্টারের যা খুলে পরিস্কার করা যায়। বালিশটির ডিজাইন অনেকটা দোলনার মতো। বৈদ্যুতিক সকেটের মাধ্যমে বালিশটিতে শক্তি সরবরাহ করা হয়।

Smart pillow -1

বালিশটি কিনতে পারবেন নিউইয়র্ক ভিত্তিক অনলাইন বেচাকেনার দোকান Hammacher Schlemmer থেকে যার দাম পড়বে ১৪৯ ডলার যা বাংলাদেশী টাকায় ১১,৮০০ টাকা।

তথ্যসূত্রঃ Dailymail

Loading...