The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

সিলেটে আরেক সুন্দরবন রাতারগুল! সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় গড়ে উঠতে পারে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ চারদিকে অবারিত সবুজের সমারোহ। শুধু দু’পাশের ছোট ছোট টিলায় নয়, পানিতেও মাথা উঁচু করে আছে অগণিত গাছ। গাছে গাছে হরেক পাখির কলতান; পানিতে মাছের সঙ্গে সাপ-ব্যাঙ-জোঁক তো আছেই। প্রকৃতির অনাবিল অপরূপ সৌন্দর্য যেন ফুটে উঠেছে রাতারগুলে। দেশের একমাত্র সোয়াম্প ফরেস্ট; বাংলায় জলাবন। পর্যটকদের কাছে যা অপার বিস্ময়ের জন্ম দেওয়া আরেক সুন্দরবন। সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার এ প্রাকৃতিক বিস্ময় পর্যটকদের নজর ভালোভাবে কাড়ার আগেই হুমকির মুখে পড়েছে।

Ratargul

স্থানীয় একশ্রেণীর অর্থলিপ্সুর কারণে রাতারগুলে পর্যটকদের অবাধ যাতায়াতে বিঘ্‌ন সৃষ্টি করছে। সমপ্রতি সরেজমিনে যাওয়ার পথেও দেখা যায়, রাতারগুলের বাসিন্দা আব্বাস আলী, ইসমাইল, মদরিছ, বাবুল, মঈনুদ্দিন, শোয়েবসহ কয়েকজন স্থানীয় খইয়া খাল ইজারা নেওয়ার নাম করে রাতারগুলে যাওয়ার জলপথে বাঁশের বেড়া দিয়ে পর্যটকদের যাতায়াতে বাধা দিচ্ছেন।

অবশ্য অশুভ পদক্ষেপের পাশাপাশি এলাকাবাসী পর্যটকদের অবারিত যাতায়াতের জন্য ইতিবাচক উদ্যোগও নিয়েছেন। সমপ্রতি স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে রাতারগুল গ্রামবাসী দুই কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ শুরু করেছেন। ফতেপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবরুল হোসেন বাবুল জানান, গ্রামবাসী স্বেচ্ছাসেবক কমিটি করে রাস্তা নির্মাণ শুরু করেছে। ওই কমিটির সভাপতি হারিছ মিয়া ও সেক্রেটারি আনোয়ার হোসেন বলেন, রাতারগুল গ্রাম দিয়ে পর্যটকদের যাতায়াতে সুবিধার জন্য রাস্তা নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

৩ হাজার ৩২৫ দশমিক ৬১ একর জায়গাজুড়ে রাতারগুলের এই জলাবন বর্ষাকালের চার মাস অথৈ জলে প্রায় নিমজ্জিত থাকে। এছাড়া অন্য সময় পানি কমে বনের মধ্যে ছোট ছোট খালে পরিণত হয়। সিলেট নগরী থেকে ২৬ কিলোমিটার দূরবর্তী এই জলাবন ফতেপুর ইউনিয়নের গুয়াইন নদীর দক্ষিণে অবস্থিত। এর দক্ষিণে রয়েছে আরও দুটি হাওর, শিমুল বিল ও নেওয়া বিল। ১৯৭৩ সালে পুরো জলাবনের ৫০৪ একরকে বন্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য হিসেবে ঘোষণা করে বন বিভাগ।

মূলত প্রাকৃতিক বন হলেও পরবর্তী সময়ে এখানে বন বিভাগ বেঁত, কদম, হিজল, মুর্তাসহ নানা জাতের জলসহিষ্ণু গাছ লাগায়। এছাড়া জলমগ্ন এ বনে আরও রয়েছে, করচ, বরুণ, পিঠালি, অর্জুন, ছাতিয়ান, গুটিজাম থেকে শুরু করে নানা জাতের বট। বিশ্বের মাত্র ২২টি সোয়াম্প ফরেস্টের একটি এই রাতারগুল আসলে চারদিকে নদী আর হাওরবেষ্টিত। বছরের অধিকাংশ সময় জলমগ্ন থাকে বলে গাছগুলোকে দূর থেকে দেখে মনে হয় জলের ওপর ভাসছে।

প্রতিদিন শত শত পর্যটক এ সৌন্দর্য দেখতে আসেন জানিয়ে রাতারগুল সোয়াম্প ফরেস্টের বন প্রহরী হুমায়ুন কবির বলেন, এই বনে নানা জাতের সাপের আবাস বেশি। এছাড়া পানিতে জোঁকও রয়েছে। শুকনো মৌসুমে বেজিও দেখা যায়। রয়েছে বানর ও গুঁইসাপ। তিনি জানান, সারা বছর হরেক রকমের পাখিও দেখা যায় এখানে। এর মধ্যে সাদা বক, কানা বক, মাছরাঙা, টিয়া, বুলবুল, পানকৌড়ি, ঘুঘু, চিল, বাজপাখি অন্যতম। শীতকালে বালিহাঁসসহ প্রচুর পরিযায়ী পাখিও আসে এখানে। মাছের মধ্যে আছে টেংরা, খইলশা, রিঠা, পাবদা, আইড়, কালিবাউশ, রুইসহ বিভিন্ন প্রজাতি।

দীর্ঘদিন ধরে প্রকৃতির অপার বিস্ময় হয়ে স্বমহিয়ায় থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ে পর্যটকদের নজর কেড়েছে রাতারগুলের জলাবন। গোয়াইনঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল হাকিম চৌধুরী বলেন, রাতারগুলের নৈসর্গিক দৃশ্য বিরল। জলের ওপর বৃক্ষরাজির অপরূপ শোভা মানুষকে বিমোহিত করে। সরকার রাতারগুলকে সরকারিভাবে পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তুললে একদিকে সরকার যেমন মোটা অঙ্কের রাজস্ব পাবে, তেমনি এলাকারও উন্নয়ন হবে। এ দাবিতে গত ২০ অক্টোবর নগরীর সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচিও পালিত হয়।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিম কীম রাতারগুল প্রসঙ্গে বলেছেন, বড়ই অদ্ভুত এ পানির রাজ্য। কোনো গাছের হাঁটু পর্যন্ত ডুবে আছে পানিতে। একটু ছোট যেগুলো, সেগুলো আবার শরীরের অর্ধেকই ডুবিয়ে আছে পানিতে। মাঝে মধ্যেই ঘন হয়ে জন্মানো গাছের ডালপালা আটকে দেয় পথ। হাত দিয়ে ওগুলো সরিয়ে তৈরি করতে হয় পথ।

পর্যটন শিল্পের অবারিত দ্বার খুলে দেওয়া রাতারগুলকে সরকারিভাবে পৃষ্ঠপোষকতা করা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন আবদুল করিম কীম। তিনি বলেন, যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নয়ন, নিরাপত্তাসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দিলে পর্যটকের ঢল নামবে এখানে। বন বিভাগের এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, পর্যটকদের প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা দিতে হলে সরকারের শীর্ষ মহল থেকে উদ্যোগ নিতে হবে। এক্ষেত্রে পর্যটন মন্ত্রণালয়েরও ভূমিকা নিতে হবে।

আমরাও আশা করি পর্যটন করপোরেশনসহ সরকারের সংশ্লিষ্টরা এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx