বাঘের সঙ্গে বন্ধুত্ব করেছে ইন্দোনেশিয়ার এক যুবক!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ মানুষের সাথে মানুষের বন্ধুত্ব হয়-এটা চির সত্যি একটি বিষয়। কিন্তু ইদানীং প্রাণীদের প্রতি মানুষের আগ্রহ ও বন্ধুত্ব বাড়ছে। অনেকে বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী গৃহপালিত পশুর মতোই বাসাবাড়িতে লালন-পালন করছে। এমনই একটি পিলে চমকানো খবর আর তা হলো, একেবারে বাঘের সঙ্গে বন্ধুত্ব। হ্যাঁ এমনটিই সম্ভব করেছেন ইন্দোনেশিয়ার এক যুবক।

আবদুল্লাহ সোহেল (৩১) নামের ওই যুবক রীতিমতো ভাব-বন্ধুত্ব, খুনসুটি এমনকি ঝগড়া মারামারি সবই হচ্ছে বিপরীত বৈশিষ্ট্যের দুই বন্ধুর সঙ্গে। ডেইলি মেইল জানিয়েছে, নিজের বাঘটির সঙ্গে নিয়মিত থাকা-খাওয়া, ঘুম ও লড়াই সবই করেন সোহেল। তিন মাস বয়স থেকে বাঘটিকে পালছেন তিনি। এখন তার বয়স ৪ বছর। ইন্দোনেশিয়ার মালাং অঞ্চলের বাসিন্দা সোহেলের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে বন্ধুত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হলেও বাঘটি মূলত তার নয়। অন্য মালিকের বাঘটিকে পোষার দায়িত্ব পড়েছে তার ওপর। সে কাজটি খুব ভালভাবে করে চলেছেন তিনি। বাড়ির বাইরে বাগানে যখন বাঘের সঙ্গে খেলা করেন সোহেল তখন বাঘটি তাকে জড়িয়ে ধরে, আদর করে ও চুমো খায়। বাঘটি এখনও ভালভাবে তার শক্তি ও স্বভাব সম্পর্কে উপলব্ধি করা শিখেনি।

ভবিষ্যতে এই বন্ধুত্ব কতটা স্থায়িত্বে রূপ নেবে সেটি এখন জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না। তবে একটি হিংস্র জন্তুর সঙ্গে এমন অবলীলায় বন্ধুত্ব বড়ই বিরল।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...