The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

ব্রাজিলের পরাজয়ের নেপথ্যে: নেইমারের অনুপস্থিতি না গোলকিপারের ব্যর্থতা?

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বড় এক অঘটনের মধ্যদিয়ে ব্রাজিল বিশ্বকাপ ২০১৪ এর স্বাগতিক ব্রাজিলের এক করুণ বিদায় ঘটেছে। যেখানে ফাইনালে খেলার হাতছানি ছিল সেখানে ৭টি গোল হজম করে এক করুণ বিদায় নিলো ব্রাজিল। আসলে এর নেপথ্যে কি ছিল? নেইমারের অনুপস্থিতি ও গোলকিপারের ব্যর্থতা?

Brazil defeat background

বাংলাদেশের বহু ভক্তকে শিক্ত করে বিদায় নিয়েছে বিশ্বকাপ ২০১৪ আসরের ফেভারিট এক দল স্বাগতিক ব্রাজিল। বিদায় যে একজনকে নিতে হবে সেটি জানা কথা। কিন্তু তাই বলে এমন করুণ বিদায়? এই বিষয়টিই যেনো ব্রাজিল ভক্তরা মেনে নিতে পারছেন না। যদিও খেলার একেবারে শেষ সময় এক গোল শোধ করেছে। তাতে বিশাল সমুদ্রে এক ফোটা জলের মতো! ৭টি গোল শুধু ব্রাজিল নয়, লক্ষ-কোটি ভক্তদের হৃদয়কে নাড়া দিয়েছে।

বিশ্বকাপের শুরু থেকে অনেক অঘটন ঘটেছে। যেমন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন স্পেন একের পর এক হেরে বড় অঘটনের জন্ম দিয়েছেন। কিন্তু নেইমার বিহিন ব্রাজিল শেষপ্রান্তে এসে এমনভাবে পরাজয়বরণ করবে তা কেও আশা করেনি।

Brazil defeat background-3

ব্রাজিলের এই করুণ পরাজয়ের পিছনে আসলে কি ছিল? সেই বিশ্লেষণ করার চেষ্টা করা হলো। প্রথমত ব্রাজিল আগের ম্যাচে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে নেইমারকে মাঠে নামাতে পারেনি। এতে করে মুখে যতই বলুক না কেনো ব্রাজিলের খেলোয়াড়দের মধ্যে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। দ্বিতীয়ত গোলকিপার। সেমিফাইনালের খেলায় গোলকিপারের ভুমিকা প্রশ্নবিদ্ধ। কেননা গোলকিপার অনেক সহজ বলও ধরতে পারেননি। গোলকিপারের ব্যর্থতাও এখানে বড় কাজ করেছে। কারণ যদি ২/৩টি গোল প্রথম পর্যায়েই গোলকিপার ঠেকিয়ে দিতে পারতো তাহলে খেলোয়াড়দের মনোবল নষ্ট হতো না। সেক্ষেত্রে ব্রাজিল গোল করতে পারতো। একের পর এক অনেক সহজ বলও ধরতে পারেনি ব্রাজিলের গোলকিপার। আর তাই একের পর এক গোল খেয়ে তাদের মাথা খারাপ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। যে কারণে পরে তাদের থেকে ফাউল হওয়া শুরু হয়। যা আগের বিশ্বকাপে দেখা যায়নি।

Brazil defeat background-2

তবে নেইমার বা গোলকিপার যার দোষই দেওয়া হোক না কেনো ভাগ্যও এখানে বড় ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করেছে। প্রথমার্ধে ব্রাজিলের নিয়ন্ত্রণেই ছিল বল। কিন্তু ভাগ্যে না থাকায় গোল পায়নি তারা। প্রথমেই একটি গোল দিয়ে দিলে জার্মানির খেলোয়াড়দের মনোবলে আঘাত করা যেতো, তাতে তাদের খেলায় ভাটা পড়তে পারতো। কিন্তু তা জোটেনি ব্রাজিলের কপালে। তাই এমন করুণ এক পরিণতিকে স্বীকার করে নিতে হলো ব্রাজিলের সমর্থকদের। একের পর এক গোলের কারণে স্টেডিয়ামের কানায় কানায় পূর্ণ দর্শকদের মধ্যে নেমে আসে পিন পতন নিরবতা। বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ দর্শকরা গতকাল বড় পর্দায় দেখছিল ব্রাজিলের খেলা। তাদেরও যেনো আঘাতপ্রাপ্ত বিমর্ষ হয়ে ফিরতে হয়েছে।

ব্রাজিল ও জার্মানির এই গোল বন্যার কথা বিশ্বকাপ ইতিহাসে রেকর্ড হয়ে থাকবে চিরদিন। মানুষের মনেও এই দাগ কাটতে অনেক সময় লাগবে। তবে আজকের আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডস্ এর খেলায় কি ঘটে সেটি দেখার জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন বাংলাদেশের অনেক দর্শক।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx