The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

বিশ্বে প্রতি ৪০ সেকেন্ডে একজনের আত্মহত্যা ঘটে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ডব্লিউএইচও বলেছে, বিশ্বে প্রতি ৪০ সেকেন্ডে একজনের আত্মহত্যা ঘটে। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

suicide & WHO

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বে প্রতি ৪০ সেকেন্ডে একজন মানুষ আত্মহত্যা করে। বিভিন্ন সামাজিক প্রতিবন্ধকতার জন্য প্রতিরোধযোগ্য এই সমস্যাটি নজর এড়িয়ে যাচ্ছে।

সংবাদ মাধ্যমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত অভিনেতা এবং নির্মাতা রবিন উইলিয়ামসের মৃত্যুর (তার মৃত্যুটিকে আত্মহত্যা বলে মনে করা হয়েছে) ৩ সপ্তাহ পর প্রকাশিত গবেষণাটিতে ডব্লিউএইচও সতর্ক করে বলেছে, আত্মহত্যা নিয়ে গণমাধ্যমগুলো বিশদ প্রতিবেদন প্রকাশ করায় অনেকেই এতে উৎসাহিত হয়ে আত্মহননের পথ বেছে নেয়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান মার্গারেট চ্যান বলেছেন, ‘প্রতিটি আত্মহত্যাই এক একটি ট্র্যাজেডি। বছরে আনুমানিক ৮ লাখের বেশি মানুষ আত্মহত্যা করে। প্রতিটি আত্মহত্যাই আরেকটি আত্মহত্যা চেষ্টার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।’তিনি আরও বলেন, ‘একটি আত্মহত্যার দীর্ঘদিন পরও এর প্রভাব ওই ব্যক্তির পরিবার, বন্ধু-বান্ধব এমনকি সমাজের ওপরও পড়ে।’ জানা যায়, ডব্লিউএইচও বিশ্বের ১৭২টি দেশের ওপর দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা করে এই প্রতিবেদনটি তৈরি করে। এই সংস্থাটি আত্মহত্যাকে জনস্বাস্থ্যের জন্য একটি বড় ধরনের সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করে এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধের আহ্‌বান জানিয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানায়, ২০১২ সালে উচ্চ আয়ের দেশগুলোতে আত্মহত্যার সংখ্যা বেশি। উচ্চ আয়ের দেশগুলোতে প্রতি লাখে ১২.৭ জন আত্মহত্যা করেছে। অপরদিকে নিম্ন এবং মধ্য আয়ের দেশগুলোতে এই হার লাখপ্রতি ১১.২।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এ গবেষণায় আরও বলা হয়, বার্ষিক আত্মহত্যার মোট সংখ্যার তিন-চতুর্থাংশই হয় উত্তর কোরিয়া, ভারত, নেপালে ও ইন্দোনেশিয়ায়। সংস্থাটি মনে করছে, উন্নত বিশ্বে মোট আত্মহত্যার এক-চতুর্থাংশ আত্মহত্যা ঘটে থাকে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, বিশ্বের সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যাপ্রবণ এলাকা হচ্ছে গায়ানা। দেশটিতে প্রতি লাখে ৪৪.২ জন আত্মহত্যা করে থাকে। উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ায় লাখপ্রতি ৩৮.৫ এবং ২৮.৯ জন আত্মহত্যা করে থাকে। বিষ খাওয়া, ফাঁসিতে ঝোলা ও আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার আত্মহত্যা ঘটানোর অন্যতম পন্থা বলে গবেষণায় বলা হয়। আবার এশিয়ার নগর এলাকাগুলোতে ভবনের ছাদ হতে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যার ঘটনাও উল্লেখযোগ্য।

এসব আত্মহত্যার ঘটনা রোধ করতে হলে জনসচেতনা বৃদ্ধি প্রয়োজন বলে বিশেষজ্ঞরা মত দিয়েছেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx