বাসিয়া নামের সেই মরা নদীর কাহিনী

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বাংলাদেশের সব নদ-নদীগুলো আজ হারিয়ে যেতে বসেছে। এমনই একটি নদীর নাম বাসিয়া। বিশ্বনাথের যে কেও চিনে। নিজের সীমানা ছাড়িয়ে রয়েছে নদীটির পরিচয়। এখন আর নদীটির যৌবন নেই। হারিয়ে গেছে তার সব। নদীর বুকে ধুধু বালুচর। তার বুকে প্রায় জায়গায় এখন হচ্ছে ধান চাষ। অনেক জায়গায় ছোট ছোট ছেলেরা খেলছে ক্রিকেট!
Basia River
নদী মাতৃক দেশ হিসেবে যে খ্যাতি ছিল কালের গর্ভে যেনো তা হারিয়ে যেতে বসেছে। এক সময় এ বাসিয়া নদী দিয়ে লঞ্চ, স্টিমার, পাল তোলা নৌকা চলাচল করত। এখন আর এসব দেখা যায় না। শুধুই স্বপ্ন। অনেকেই বাসিয়া নদী নিয়ে স্বপ্ন দেখেন। বাস্তবে কিছুই নেই। প্রবীণরা জানান, আজ থেকে ২০-২৫ বছর পূর্বে ১২ মাস বাসিয়া নদীতে পানি থাকত। এখন বালুচরে পরিণত হয়েছে। নেই কোন মাছ। আগের মত আর মাছের খেলা দেখা যায় না। হারিয়ে গেছে সব। প্রভাবশালী দখলদাররা নদী তীর দখল করে তৈরি করেছেন স্থাপনা। এসব দখলদারদের সহযোগিতা করে স্থানীয় প্রশাসন। বিশ্বনাথ নতুন বাজারের ব্যবসায়ী মো. নূরুল ইসলাম বলেন, বাসিয়া নদী খনন করলে মানুষ উপকৃত হত। তিনি জরুরি ভিত্তিতে নদী খনন করার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান।

কৃষক জামালউদ্দিন বলেন, বাসিয়া নদীতে পানি না থাকায় সবজি ক্ষেত করতে পারেননি। এক সময় তিনি নদীর পানি দিয়ে সবজি ক্ষেত করেছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. খায়রুল আমিন বলেন, নদী খনন করা বড়ই প্রয়োজন। তিনি বলেন, নদী খনন করলে কৃষকরা বাড়তি সুবিধা পেতেন।

Advertisements
Loading...