বিজ্ঞাপনের হাতিয়ার এবার ‘পা’!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ পণ্যের বিকিকিনি বাড়াতে প্রতিনিয়ত নিত্যনতুন উপায়ে বিজ্ঞাপন দেন ব্যবসায়ীরা। উদ্দেশ্য, ক্রেতাদের আকৃষ্ট করা। কে কতটা অভিনব উপায়ে বিজ্ঞাপন দিতে পারে, তা নিয়ে চলে রীতিমতো প্রতিযোগিতা। এ প্রতিযোগিতায় আরো ধাপ এগিয়েছে জাপান। দেশটির বিভিন্ন বাণিজ্যিক সংস্থা বিজ্ঞাপনের জন্য নারীদের ‘পা’ বেছে নিয়েছেন।

PA

রাজধানী টোকিওতে নারীদের পা-কে ‘বিজ্ঞাপনের বিলবোর্ড’ হিসেবে ব্যবহারের বিষয়টি ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে। কম্পানিগুলো জানিয়েছে, সবার নজর পড়েথএমন কোনো জায়গাতেই ‘ভালো বিজ্ঞাপন’ দেওয়া উচিত। এ কারণেই নারীদের পা বিজ্ঞাপন দেওয়ার জায়গা হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। হিসাব অনুযায়ী, ২০১২ সালের নভেম্বর পর্যন্ত প্রায় এক হাজার ৩০০ নারী এভাবে বিজ্ঞাপন প্রচারে অংশ নিয়েছে। দিন দিন এ সংখ্যা বাড়ছে।

নারীদের কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম বেঁধে দিয়েছে কোম্পানিগুলো। মিনি স্কার্ট, শটস অর্থাৎ যেসব পোশাকে পায়ের বেশির ভাগ অংশ দেখা যাবে -এমন পোশাক পরতে হবে। কারণ পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের লোগো বা প্রতীকের ট্যাটু অথবা স্টিকার নারীদের হাঁটুর একটু ওপরে লাগিয়ে দেওয়া হয়। এরপর তারা স্বাভাবিক কাজকর্মে বেরিয়ে পড়েন। পোশাক লম্বায় ছোট হওয়ায় বিজ্ঞাপনগুলো দেখা যায়।

দিনে আট ঘণ্টা বা তার কিছু বেশি সময় বিজ্ঞাপন প্রচারের প্রমাণ হিসেবে ফেসবুক, টুইটার বা অন্য যেকোনো সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইটে ছবি প্রকাশ করতে হয়। কাজ শেষে পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়া হয়। সম্প্রতি জাপানের গ্রিন ডে নামের একটি ব্যান্ড তাদের নতুন গানের সিডির প্রচারে এ উপায়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছে।

বিজ্ঞাপনে নিবন্ধিত হতে সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইটে অবশ্যই ২০ জন বন্ধু থাকতে হবে এবং বয়স ১৮ বছরের বেশি হতে হবে। সূত্র : ডেইলি মেইল।

Advertisements
Loading...