The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

গর্ভের মধ্যেই শিশুর প্রথম সফল অস্ত্রপচার!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আগে যা কখনও ঘটেনি এবার তাই ঘটলো। গর্ভের মধ্যেই শিশুর প্রথম সফল অস্ত্রপচার করা হয়েছে। ঘটনাটি ভারতের।

Baby's first successful surgery

ভারতীয় চিকিত্‍সকরা এক ইতিহাস রচনা করলেন। জরায়ুর মধ্যেই গর্ভস্থ সন্তানের অস্ত্রপ্রচার করলেন তারা। এই প্রথম এই ধরণের বিরল অস্ত্রপ্রচার করা হলো ভারতে।

এক মহিলার গর্ভাবস্থার ২৭ সপ্তাহে হঠাত্‍ই দেখা দেয় গর্ভস্থ সন্তানের হার্টের ৯০ শতাংশ ব্লক। যে কারণে দূষিত রক্তের সঙ্গে মিশে যাচ্ছে বিশুদ্ধ রক্তও। সেকারণে, হয় গর্ভেই সন্তানের মৃত্যু হবে, অথবা জন্মের পর জটিলতা ভরা জীবন নিয়ে মাত্র কয়েকবছর বাঁচবে ওই নবজাতক। তবে যতো কঠিন অবস্থায় হোক এই পরিস্থিতিতেও হাল ছেড়ে দেননি চিকিত্‍সক কে এন নাগেশ্বর রাও। তিনি এবং তাঁর ৮ জনের বিশেষজ্ঞ দল গত ২৩ অক্টোবর ১৫০ মিনিটের এক বিরল অস্ত্রপচার করেন হায়দরাবাদের বানজারা হিলসের কেয়ার হাসপাতালে। কার্ডিওলজি, অবস্টেট্রিকস, গায়নকোলজি এবং পেডিয়াট্রিক বিভাগের মোট ২২ জন চিকিৎসকের দল এই সাফল্যের সৈনিক।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এক্ষেত্রে সবচেয়ে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন অন্তসত্ত্বা মহিলা নিজে। এম সিরিশা বিজ্ঞানের শিক্ষিকা হওয়ায় বুঝেছিলেন জটিলতার কারণ কতখানি। তিনি সম্মতি দেওয়ার পর ২৫ সপ্তাহে প্রথম একবার অস্ত্রপচারের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু সেই চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় ২৭ সপ্তাহের মাথায় দ্বিতীয় চেষ্টায় সফল হয় এই অস্ত্রপচার। কে এন নাগেশ্বর জানালেন, ‘এখন মাত্র ৬০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। বাকি ৪০ শতাংশ হবে শিশুর জন্মের পর। ডিসেম্বর মাসের তৃতীয় সপ্তাহে পৃথিবীর আলো দেখতে চলেছে এম সিরিশার ওই সন্তান।’

সাফল্যে উচ্ছ্বসিত চিকিত্‍সক নাগেশ্বর সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘এই ধরণের যুগান্তকারী অস্ত্রপচার করার জন্য আমি বিগত ১০ বছর ধরে অপেক্ষা করছিলাম। বছর তিনেক আগে একবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছিলাম। সেই শিশুটি মারা গিয়েছিল। কিন্তু এবার সুস্থ শিশুর জন্ম দেবেন এই মা।’ ইউরোপ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই ধরণের অস্ত্রপচার হলেও ভারতে এটিই প্রথম। কেয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই চিকিত্‍সার খরচ আনুমানিক ৩ লক্ষ রুপি।

এখন শুধুই অপেক্ষা। সুস্থ্যভাবে শিশুটির জন্মের অপেক্ষায় রয়েছে পরিবার, হাসপাতাল ও চিকিৎসকরা। সুস্থ্যভাবে জন্ম নিলে তবেই চিকিৎসকদের পরিশ্রম সফল হবে এমনটিই আশা করছেন তারা।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx