The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

অবাক করা এক কাণ্ড: বিদ্যুৎস্পৃষ্ট সঙ্গীর চিকিৎসা করে বাঁচিয়ে তুললো অপর এক বানর!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট সঙ্গীর চিকিৎসা করলো এক বানর। কোলকাতার কানপুর সেন্ট্রাল রেল স্টেশনে এই অাশ্চর্যজনক ঘটনাটি ঘটেছে। এই দৃশ্য সবাই দেখে হতবাক।

electric pol & medical monkey

সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, দক্ষ চিকিৎসকের মতোই প্রায় ঘণ্টাখানেকের চেষ্টায় এক বানরের প্রাণ ফেরালো তারই অপর সঙ্গী। আর এই চিকিৎসা পর্বের খবর ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে। কোলকাতার কানপুর সেন্ট্রাল রেল স্টেশনে এই অাশ্চর্যজনক ঘটনাটি ঘটেছে।

প্রত্যেকদিনের মতোই ওইদিন রেল স্টেশনের হাইটেনশন বিদ্যুতের তার বেয়ে নামছিল এক বানর। এরইমধ্যে ঘটলো বিপত্তি। কিন্তু আর যায় কোথায়। বানরটির তৎক্ষণাৎ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিচে রেললাইনে পড়ে গেলো। স্টেশনে উপস্থিত লোকজন এভাবে এক জীবের প্রাণ চলে যেতে দেখে দুঃখিতও হয়েছিলেন। কিন্তু সবাই শুধু দেখেই ক্ষান্ত হলেন।

কিন্তু কিছুক্ষণ পর যা ঘটলো তা দেখতে প্ল্যাটফর্মে যেনো ভিড় উপচে পড়লো। মৃতপ্রায় সঙ্গীর দিকে গুটিগুটি পায়ে এগিয়ে এলো কয়েকটি বানর। তাদের মধ্যে একজন বেশ হাট্টাগোট্টা।

ওই বানরটি তখন মৃতপ্রায় সঙ্গীর দেহ নাড়াচাড়া করতে শুরু করে দিলো। শুধু তাই নয়, এরপর সে রীতিমতো চিকিৎসা শুরু করে দিলো। যা দেখে নড়েচড়ে বসলো প্ল্যাটফর্মে থাকা সাধারণ জনতা। কেও আবার মোবাইল বের করে গোটা ঘটনার রেকর্ডিং করতে শুরু করলো।

এরপর দেখা গেলো নাড়াচাড়া করে সঙ্গীর সাড়া না পেয়ে ওই বানরটি তাকে পাশের নালাতে ডুবিয়ে দিলো। জ্ঞান না ফেরায় সঙ্গীর দেহের বিভিন্ন অংশে কামড়াতে থাকলো। তাতেও কাজ না হওয়ায় ফের নালাতে চুবিয়ে দিলো সঙ্গীকে। বিষয়টি ছিল একেবারে আধুনিককালের শক থেরাপির মতো।

এখন নালা থেকে সঙ্গীর দেহ তুলে এনে জোর করে নাড়াতে থাকলো বানরটি। বেশ কিছুক্ষণ এরকম চিকিৎসা চলার পর দেখা গেলো আসল ঘটনা। সবাইকে তাক লাগিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট বানরের শরীরে জীবনের লক্ষণ দেখা গেলো। এরপর এতক্ষণ নেতিয়ে থাকা মৃতপ্রায় দুর্বল শরীরের ওই বানরটি উঠেও বসলো। মানুষের মতোই একজন সঙ্গীকে কিভাবে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনলো তা দেখে হতবাক সবাই।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...