The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

ঋদ্ধি বলেছেন: নিরব আমাকে অপহরণ করেনি, আমি স্বইচ্ছায় বিয়ে করেছি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কয়েকদিন নিরব থাকার পর আবার সংবাদ মাধ্যমের খবর হয়েছেন মডেল ও চিত্র নায়ক নিরব। নিরবের নববিবাহিত স্ত্রী তাসফিয়া তাহের ঋদ্ধি বলেছেন নিরব আমাকে অপহরণ করেনি। আমি স্বইচ্ছায় বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছি।

Nirob- reddhi

মডেল নিরবের বিয়েকে ঘিরে নিয়ে গত এক সপ্তাহ ধরেই চলছে নানা জটিলতা। নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটির ছাত্রী তাসফিয়া তাহের ঋদ্ধির সঙ্গে ২৬ ডিসেম্বর বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন নিরব। তবে জনপ্রিয় এই মডেল-অভিনেতার বিরুদ্ধে উত্তরা পূর্ব থানায় মেয়ে ঋদ্ধিকে অপহরণের মামলা করেছেন শ্বশুর আবু তাহের চৌধুরী। বিষয়টির এখনও কোনো সুরাহা হয়নি। নিরবের স্ত্রী ঋদ্ধির সাক্ষাৎকার বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে। যাতে নিরবের বিবাহিত স্ত্রী তাসফিয়া তাহের ঋদ্ধি নিজের বক্তব্যেই অপহৃত হওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন। নিরবকে নিজের ইচ্ছায় বিয়ে করার কথাও বলেছেন ঋদ্ধি।

সেদিনের বিয়ে কিভাবে হলো সে প্রশ্নে ঋদ্ধি বলেছেন, ‘সেদিন একজনের সঙ্গে আমার আকদ হওয়ার কথা ছিল। এজন্য আমাকে নিয়ে খালামণিরা উত্তরায় পারসোনায় গিয়েছিলেন। আমি বের হওয়ার জন্য সুযোগ খুঁজছিলাম। হঠাৎ খালামণিরা একটু সরে যেতেই আমি নিচে নেমে আসি। নিরব আগে থেকেই আমার জন্য গাড়ি নিয়ে অপেক্ষা করছিল। তারপর সেখান থেকে আমরা নিরবের বাসায় চলে গেলাম। সেখানেই সন্ধ্যায় আমাদের বিয়ে হয়। বিয়েতে নিরবের বন্ধুরাও উপস্থিত ছিল।’

তার বাবার পুলিশকে অভিযোগ সম্পর্কে তিনি জানিয়েছেন, ‘সেদিন আমার অন্য ছেলের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। ঘটনাটি সত্যি। ওইদিন বিকেলে আমার আরেক জায়গায় আকদ হওয়ার কথা ছিল।’

অন্যখানে বিয়ে দেওয়ার জন্য মতামত নেওয়া হয়েছিল কি-না এমন এক প্রশ্নের জবাবে ঋদ্ধি বলেছেন, ‘হ্যাঁ। আমাকে জিজ্ঞেস করেছিল বিয়েটা করতে চাই কি-না। আমি না বলে দিয়েছিলাম। এ নিয়ে পরিবারের সঙ্গে আমার তর্ক-বিতর্কও হয়েছে। কিন্তু আমার মন পাল্টাতে পারেননি তারা।’ ঋদ্ধি বলেছেন, ‘অন্য অভিভাবকদের মতোই হয়তো মা-বাবার ধারণা ছিল, বিয়ের পর সব ঠিক হয়ে যাবে।’ ঋদ্ধি বলেছেন, ‘আমি কখনও রাজি হয়নি অন্যত্র বিয়ের ব্যাপারে।’

ঋদ্ধি তার বাবার পুলিশের কাছে যেসব অভিযোগ করেছেন সেগুলো সবই মিথ্যা হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছেন, ‘সব মিথ্যা বলতে গেলে আমার বিয়ে ঠিক হওয়া, পার্লারে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা সত্যি। কিন্তু অপহরণের অভিযোগ মিথ্যা। আমাকে অপহরণ করা হয়নি। আমি নিজের ইচ্ছায় নিরবের কাছে এসেছি এবং বিয়ে করেছি। কেও আমাকে জোর করে এখানে আনেনি। আমি স্বইচ্ছায় এসেছি।’

তবে মামলা মোকাদ্দমা যায়ই হোক না কেনো, বাবা-মায়ের সঙ্গে মোবাইলে কথা হয়েছে বলে স্বীকার করনে নিরবের নববিবাহিত স্ত্রী তাসফিয়া তাহের ঋদ্ধি। তিনি মনে করেন, এক সময় বাবা নিশ্চয়ই মামলা তুলে নেবেন এবং সব কিছু আবার স্বাভাবিক হবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx