এক নারীর প্রেম গাছের সঙ্গে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রেমের যে কতরকম গতি প্রকৃতি রয়েছে তার কোনো শেষ নেই। কথায় বলে ‘প্রেমেতে মজিল মন, কিবা মুচি কিবা ডোম’। সেই কথাটির আরও এক ধাপ এগিয়েছে এবার। এক নারীর প্রেম হয়েছে গাছের সঙ্গে!

A woman in love with a tree

এই আমলের লাইলী মজনুর মতো কাহিনী। এমা ম্যাককেইব নামে এক নারী প্রেমে পড়েছেন। তবে প্রেমে পড়াতে কোনো বাধা নেই। কিন্তু এর জন্য এতো আলোচনা-সমালোচনার বিষয় একটি তা হলো তিনি প্রেম করেছেন গাছের সঙ্গে!

এমা ম্যাককেইব যার প্রেমে মজেছেন টিন নামের ওই প্রেমিকটি পাত্র হিসেবে আর পাঁচ জনের মতো নন। পাত্র টিন কোথাও গমনে মোটেও ইচ্ছুক নন। যে টিনকে নিয়ে এতো চর্চা, সে আসলে কোনো মানব নয়, একটি গাছ। গাছের সঙ্গে বিয়ে, নতুন নয়। জ্যোতিষ শাস্ত্রে মাঙ্গলিক দোষ কাটাতে কনেদের গাছের সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়ে থাকে। বিয়ে হয় বট-পাঁকুড়েরও। তবে সে তো প্রতীকি। একমাত্র দোষ কাটাতে। কিন্তু, আক্ষরিক অর্থেই কেও গাছের সঙ্গে প্রেম করেন, এমনটা কখনও শোনা যায়নি। অনেকে বৃক্ষপ্রেমীদের সঙ্গে মিলিয়ে ফেলতে পারেন। তবে এটি কিন্তু মোটেও নয়।

ওই তরুণী এমা নিজেই বলেছেন, ‘আমি সত্যি টিনকে ভালোবাসি। টিনকে নিয়ে আমার অনুভূতিতে এতটুকুও খাদ নেই। আমি ওকে বিয়েও করতে চাই। এই ভালোবাসা এতটাই, আশপাশের অন্য গাছের দিকে ফিরেও কখনও তাকান না এমা। হাতও দেন না অন্য কোনো গাছে। পাছে যদি কষ্ট পায় তার প্রেমিক ‘টিন’ নামের গাছটা!

সবাই এমাকে পাগল বলেছেন। গাছকে বিয়ে করে কি কারো পক্ষে সুখী দাম্পত্য জীবন সম্ভব? একটা সুস্থ শারীরিক সম্পর্ক গড়া কি সম্ভব? এমার দাবি, সম্ভব। গাছের সঙ্গে প্রেম করার কথা বলতেও কুণ্ঠা নেই এমার। এমার কথায়, ‘আমার মানসিক চাহিদাই শুধু নয়, শারীরিক চাহিদাও পূরণ করে টিন।’

তরুণী এমা জানান, সপ্তাহে চারবার তাদের দেখা হয়। তার সঙ্গে সময় কাটাতে খুব ভালো লাগে, কথা বলেই কেটে যায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা! সুখ-দু:খের সব কথা শেয়ার করে এগাছের সঙ্গে এমা। কথা আর ফুরোয় না তার।

গাছের সঙ্গে মানুষের প্রেম! যা শুনে কেও বিস্মিত, কেও আবার বিদ্রুপও করেছেন। তা করুক না, তাতে কিছু আসে যায় না প্রেমিকা এমার। এমা মনে করে প্রেম করা কিছু দোষের নয়। যুগ যুগ ধরে মানুষ যেমন প্রেমে মজেছেন, ঠিক তেমনি এমা ম্যাককেইবও প্রেমে মজেছেন- তাতে দোষের কি?

Advertisements
Loading...