১ আগস্ট হতে স্মার্টকার্ড!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আগামী ১ আগস্ট হতে নাগরিকদের হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেবে নির্বাচন কমিশন। ১০ বছরের জন্য উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র বা এই স্মার্টকার্ড বিতরণের কার্যক্রম শুরু হচ্ছে।

1 August 2015 to smartcard

নির্বাচন কমিশন ইতিপূর্বে এই স্মার্টকার্ড বিতরণের ঘোষণা দিলেও নানা জটিলতায় এটির বাস্তবায়ন বিলম্ব ঘটেছে। তবে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানানো হয়েছে যে, আগামী আগস্ট মাসের ১ তারিখ হতে ভোটারদের হাতে ১০ বছরের জন্য উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র বা এই স্মার্টকার্ড বিতরণের কার্যক্রম শুরু করা হবে।

সংবাদ মাধ্যমকে এ বিষয়ে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের (এনআইডি) মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো: সালেহ উদ্দিন বলেছেন, ‘জুলাই মাসের শেষের দিকে না হলেও আগস্ট মাসের ১ তারিখ হতে সবার হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেওয়া হবে। বর্তমানে চালু লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্রটি ফিরিয়ে দিয়ে বিনামূল্যে উন্নত মানের এই স্মার্টকার্ড পাবেন সকল ভোটার।’

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট তথ্যে বলা হয়েছে, স্মার্টকার্ডে ৩ স্তরে ২৫টির মতো নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য এবং আন্তর্জাতিক মানদণ্ড বজায় রেখে ৮টি বৈশিষ্ট্য নিশ্চিত করা থাকবে।

মূলত জালিয়াতি রোধে জাতীয় পরিচয়পত্রের নাগরিকদের দেওয়া হবে যন্ত্রে পাঠযোগ্য এই স্মার্টকার্ড। বর্তমানে এক পৃষ্ঠায় নাম, পিতা ও মাতার নাম, জন্ম তারিখ এবং আইডি নম্বর। অপর পৃষ্ঠায় ঠিকানা-সংবলিত লেমিনেটিং করা কার্ড দেওয়া হয়ে থাকে ভোটারদের। স্মার্টকার্ডে নাগরিকের এসব সকল তথ্যই থাকবে।

গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে জাতিকে স্মার্ট এনআইডি কার্ড ‘উপহার’ দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল নির্বাচন কমিশনের। নানা জটিলতার কারণে সেটি হয়ে ওঠেনি। চলতি বছরের ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে স্মার্টকার্ড দেওয়ার পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেছিল নির্বাচন কমিশন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই দিন স্মার্টকার্ডের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন- এমন পরিকল্পনাও ছিল কিন্তু ওই দিনও স্মার্টকার্ড দিতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। এর কারণ হিসেবে জানা যায়, তিন সিটি নির্বাচনের জন্য ঢাকা ও চট্রগ্রামে জাতীয় পরিচয়পত্রের কার্যক্রম বন্ধ ছিল। সে কারণে এটির উদ্বোধন করা সম্ভব হয়নি। তবে ২৯ এপ্রিল হতে এর কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আগামী ১ আগস্ট হতে সবার হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দিতে পারবে নির্বাচন কমিশন এমনটিই জানানো হয়েছে।

১৮ বছরের কম বয়সী নাগরিকদেরও এনআইডি কার্ড কীভাবে দেওয়া যায়- সেটি নিয়েও চিন্তা-ভাবনা রয়েছে নির্বাচন কমিশনের। জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন বিধিমালাতেও ১৮ বছরের কম বয়সী নাগরিকদের বা যারা ভোটার হওয়ার যোগ্য নয়, তাদের এনআইডি কার্ড দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

এনআইডির মহাপরিচালক বলেছেন, ‘এনআইডি কার্ড শুধু ভোটাররা পাবেন তা নয়। ভোটার হওয়ার যারা যোগ্য না- এমন অনেকেই এই দেশের নাগরিক। সে কারণে প্রথম পর্যায়ে ১৬/১৭ বয়সীদের এই পরিচয়পত্র দেওয়া যেতে পারে।’ জানা গেছে, তবে বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

স্মার্টকার্ড প্রথমবার পাওয়া যাবে বিনামূল্যে। কিন্তু হারিয়ে গেলে এই স্মার্টকার্ড টাকা দিয়ে নিতে হবে। প্রথমবার হারিয়ে গেলে বা নষ্ট হলে ২০০ টাকা, দ্বিতীয়বারের জন্য ৩০০ ও পরবর্তী যেকোনো বারের জন্য ৫০০ টাকা দিতে হবে প্রত্যেককে। আবার জরুরি ভিত্তিতে স্মার্টকার্ড পেতে হলে ৩০০ টাকা হতে সর্বোচ্চ এক হাজার টাকা পর্যন্ত দিতে হবে। নবায়ন করতে হলে ১০০ টাকা ফি দিতে হবে।

Advertisements
Loading...