এক ব্যতিক্রমি কান্না উৎসব কাহিনী!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বহু উৎসব আমরা দেখেছি। কিন্তু তাই বলে কান্নার উৎসব? ঠিক তাই এক ব্যতিক্রমি কান্না উৎসব কাহিনী রয়েছে আজ আপনাদের জন্য! এই উৎসবটি হয় চীনে।

Festival exceptions tears

আমাদের দেশের বিশেষ করে গ্রাম-বাংলার এক রীতি রয়েছে কান্নার। বিশেষ করে বিয়ের আগে কান্নার রোল পড়ে যায়। যদি কারওয় ভালোবাসা বা পছন্দের বিয়ে হয় সেও বিয়ের বিদায়ের সময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। পরিবারের সকলেই তাতে শরীক হন। চিরাচরিত বিয়ের সেইসব রীতি সম্পর্কে আমরা সবাই জানি। তবে আমাদের দেশের সেই রীতিকেও এবার হার মানিয়েছে চীনের এক কান্না উৎসব রীতি।

Festival exceptions tears-2

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, সেখানে বিয়ের আগে পালন করা হয়ে থাকে এই কান্না উৎসব। বিয়ের এক মাস আগে থেকেই শুরু হয় এই উৎসব। আর কান্নায় কনের সঙ্গে যোগ দেন তার আত্মীয়-স্বজনরাও।

আমাদের দেশে বিয়ের দিন বিদায়ের সময় কাঁদতে দেখা যায়। কিন্তু চায়নার তুইজা গোষ্ঠীর মেয়েদের এই কাজটি করতে হয় বিয়ের আগের ঠিক এক মাস ধরে। এই একমাস কনেরা প্রতিদিন নিয়ম করে এক ঘন্টা করে কাঁদে! শুধু তাই নয়, বিয়ের দিন যতই ঘনিয়ে আসতে থাকে কান্নার দলের সদস্য সংখ্যাও ততই বাড়তে থাকে।

Festival exceptions tears-3

বিয়ের যখন ২০ দিন বাকি থাকে, তখন কনের সঙ্গে এসে যোগ দেন তার মা। বিয়ের যখন ১০ দিন বাকি থাকে, তখন কান্না উৎসবে এসে যোগ দেয় কনের নানি। একেবারে শেষের দিকে কয়েকটা দিন পরিবারের সবাই এই কান্নার আসরে যোগ দেন। এই কান্না উৎসবের সময় তারা নিচু স্বরে গান গাওয়ার মতো করে কান্না করে থাকে। এটিই চীনের ওই অঞ্চলের চিরাচরিত এক ঐতিহ্য হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে। সত্যিই বড়ই আজব চীনের ওই কান্না উৎসব!

Advertisements
Loading...