ঘর আছে কিন্তু মানুষ নেই- এমন এক ‘সবুজ দ্বীপ’ কাহিনী!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সবুজে ঘেরা এক সুন্দর মনোরম গ্রাম। যে কারও দেখলে একবাক্যে পছন্দ হয়ে যাবে। এমন একটি গ্রামে ঘর আছে কিন্তু মানুষ নেই- মোটকথা এক ‘সবুজ দ্বীপ’। এমনই এক দ্বীপের কাহিনী আপনাদের জন্য।

a green island tale

চীনের জেজিয়াং প্রদেশের শেঙসান দ্বীপ এটি। যে দিকে তাকাবেন শুধু সবুজ আর সবুজ। এমন মনোরম দৃশ্য বোধহয় আপনার আগে কখনও চোখে পড়েনি। সেই সবুজ লতা-পাতায় ঘেরা এক অপরূপ গ্রাম এটি। আসলে সেখানকার ঘরবাড়ি ঢাকা আঙুর গাছে। তবে সেখানে ঘর থাকলেও কিন্তু মানুষ নেই বললেই চলে। সবকিছু যেনো থমকে রয়েছে। কিন্তু কেনো এমন নীরবতা-নিস্তব্ধতা?

কাহিনীটি ঠিক এরকম- শেঙসান দ্বীপের এই পরিত্যক্ত গ্রামটি ছিল সেখানকার স্থানীয় জেলেদের। কিন্তু সেই গ্রামে থেকে দা;রে জীবিকা নির্বাহ করা দুস্কর হয়ে পড়েছিল। আর তাই কাজ খুঁজতে গ্রাম ছেড়ে চলে যায় শহরে। কিন্তু অনেক পরিবার আর ফিরে আসতে পারে না তাদের ভিটেমাটিতে। এইভাবে একের পর এক ওই গ্রামের বাড়িগুলো পরিত্যক্ত হতে থাকে। খুব সামান্য সংখ্য নীরিহ মানুষ বসবাস করেন সেখানে। তবে সেটিও খুবই নগন্য। বলা চলে গ্রামটি এখন মনুষ্যবিহীন গ্রাম।

কিন্তু মানুষ না থাকলেও এই গ্রামটি কিন্তু সেজে ওঠে এক অপরূপ সৌন্দর্যে। চারিদিক লতাপাতায় ছেয়ে যায়, পাথুরে পথ হতে ঘরের চার দেওয়াল, উঠোন সবকিছুই। কুয়িং জিয়ান নামে এক ফোটোগ্রাফার শেঙসান দ্বীপে এসে প্রাক়তিক সৌন্দর্যের মুগ্ধতায় বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন। তার তোলা ছবি দেখে সারা বিশ্বের চোখেও বিস্ময়। এমন সবুজ বাড়ি ঘর আবার হতে পারে নাকি? কিন্তু বাস্তবে তাই হয়েছে। সবুজ আর সবুজ এমন দৃশ্য দেখে সবাই হতবাক। এখানে যদি সত্যিই আমরা বসবাস করতে পারতাম তাহলে কেমন হতো? তথ্যসূত্র: twistedsifter.com

Advertisements
Loading...