ইরানের সারব ঐতিহাসিক জামে মসজিদ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। আজ শুক্রবার, ২১ আগস্ট ২০১৫ খৃস্টাব্দ, ৬ ভাদ্র ১৪২২ বঙ্গাব্দ, ৫ জিলকদ ১৪৩৬ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

Sarob historic Mosque

যে মসজিদটি আপনারা দেখছেন সেটি ইরানের পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের সারব ঐতিহাসিক জামে মসজিদ। সারব শহরের ঐতিহাসিক নিদর্শনগুলোর মধ্যে এই জামে মসজিদটি বিশেষভাবে গুরুত্ব বহন করে।

আমরা ইরানের পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের একটি শহর হলো এই ‘সারব’। সারব শহরের ঐতিহাসিক নিদর্শনগুলোর মধ্যে এই জামে মসজিদটি অন্যতম। এই মসজিদটি খ্রিষ্টিয় পণেরো শতকের স্মৃতি বহন করছে। এই সারব জামে মসজিদটি ইরানের অপরাপর মসজিদের চেয়ে একটু ভিন্ন। কারণা হলো এই মসজিদের কোনো উঁচু মিনার নেই। তবে বড়ো শাবেস্তান রয়েছে ৩টি মেহরাব সম্পন্ন।

আজারবাইজান প্রদেশের পূর্বে সারব শহরটি একটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে পরিপূর্ণ। এই শহরটি উত্তর , পূর্ব ও দক্ষিণ দিক হতে সাবালন পর্বতমালা, বোযকুশ পর্বতমালা এবং ইলানজুগ্ব চূড়া পরিবেষ্টিত। এই স্থানটির বিশেষ গুরুত্বের কারণ হলো এখানকার আবহাওয়া চমৎকার। শীতকালে এখানকার আবহাওয়া থাকে ঠাণ্ডা। আর গ্রীষ্মকালে থাকে নাতিশীতোষ্ণ। শীতকালে যেমন এখানে ঠাণ্ডা আবহাওয়া থাকে, তেমনি গরমকালেও ঠাণ্ডা আবহাওয়া বিরাজ করে। যে কারণে এই এলাকাটি ইরানের অন্যতম একটি শীতপ্রধান এলাকা হিসেবে অধিক পরিচিত। এখানকার উঁচু চূড়ায় সারাবছর জুড়েই থাকে বরফে ঢাকা। আকাশ হতে অবতীর্ণ আল্লাহর এই রহমতের শীতল ধারা তাই বয়েই চলছে অবিরামভাবে। আপনি ইচ্ছে করলে এমন একটি সুন্দর স্থান ও ঐতিহাসিক মসজিদ দেখতে যেতে পারেন।

ছবি ও তথ্য: http://bangla.irib.ir এর সৌজন্যে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...