শরীরের বাইরে হৃৎস্পন্দন: তবুও বেঁচে আছে রাশিয়ান এক কন্যা!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন এক কাহিনী ঘটলো রাশিয়ার একটি মেয়েকে নিয়ে যে, যা চিকিৎসা বিজ্ঞানীদেরও চমকে দিয়েছে। অর্থাৎ শরীরের বাইরে হৃৎস্পন্দন থাকা সত্ত্বেও বেঁচে আছে রাশিয়ান এক কন্যা!

Heart outside the body

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা গেছে, রাশিয়ার ৬ বছরের ভিরসাভিয়া বরুণ। সত্যিই এক মিরাকেল শিশু! কারণ হলো তার পুরো জীবনটাই একটা বড় লড়াই। মেয়েটি জন্মেছে বুকের এবং পেটের বাইরে হার্ট ও অন্ত্র নিয়ে। তার হৃৎস্পন্দন স্বচোক্ষে দেখা ও শোনা যায়। এটি তা বুকের বাইরে, পেটের কাছে রয়েছে।

রাশিয়ায় জন্মেছে, তবে সে এখন মায়ের সঙ্গে দক্ষিণ ফ্লোরিডায় চলে গেছে। জন্মের সময় থেকেই বিভিন্ন ধরণের শারীরিক অক্ষমতা নিয়ে জন্মেছে ভিরসাভিয়া বরুণ। চিকিৎসা সমীক্ষা অনুযায়ী, এক লক্ষে মাত্র ৫.৫ শতাংশ শিশুই এখনও পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে।

এই মেয়ে ভিরসাভিয়ার হৃৎস্পন্দন দেখা যায়, এর কারণ পেটের কাছে একটা জায়গায় হৃদয়টি তার কাজ করে। যেটি একটা খুব পাতলা চামড়ার আস্তরণে ঢাকা। চিকিৎসার জন্যেই সে এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আছে। কারণ রাশিয়ার সমস্ত হাসপাতাল এই জটিল ধরণের রোগের জন্যে তার মাকে বারংবার ফিরিয়ে দেয়। বর্তমানে দক্ষিণ ফ্লোরিডায় ইংরেজি শিখছে এই মেয়েটি। শারীরিক অবস্থার কারণে কোনও স্কুল কর্তৃপক্ষ তাকে ভর্তি নেয়নি। চিকিৎসা শুরু না হলেও, ছোট্ট এই মেয়েটি নাচ, গান, আঁকা নিয়ে মেতে রয়েছে। মা ও মেয়ে আশা করছে, সময়মতো তার সঠিক চিকিৎসা হবে। স্বাভাবিক জীবনে আবার ফিরে আসতে পারবেন সে। আর এমন আশায় তাদেরকে এখনও প্রাণচাঞ্চল্য করে রেখেছে।

Advertisements
Loading...