ভারতের ঐতিহাসিক ‘বাবরি মসজিদ’ নির্মাণ ও ধ্বংসের ইতিহাস

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। আজ শুক্রবার, ২৫ মার্চ ২০১৬ খৃস্টাব্দ, ১১ চৈত্র ১৪২২ বঙ্গাব্দ, ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৩৭ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

Babri Masjid

ভারতের ঐতিহাসিক ‘বাবরি মসজিদ’-এর কথা সবাই জানেন। আজ এই মসজিদের নির্মাণ ও ধ্বংসের ইতিহাস সম্পর্কে জানুন।

বাবরি মসজিদ সম্ভবত ভারতে ও পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে আলোচিত একটি মসজিদের নাম। বাবরি মসজিদ’র অর্থ বাবরের মসজিদ।

১৫২৭ সালে মুঘল সম্রাট বাবরের আদেশে নির্মিত হয় বলে এই মসজিদের এইরকম নামকরণ করা হয়েছে। মসজিদটি ভারতের উত্তর প্রদেশের ফৈজাবাদ জেলার অযোধ্যা শহরের রামকোট হিলের উপর নির্মিত হয়। ১৯৯২ সালে একটি রাজনৈতিক সমাবেশের উদ্যোক্তারা ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অনুযায়ী মসজিদটি ক্ষতিগ্রস্থ হবে না, এই প্রতিশ্রুতি দিয়ে মসজিদ সংলগ্ল এলাকায় একটি রাজনৈতিক সমাবেশ শুরু করে। দেড় লক্ষ লোক সম্মিলিত একটি দাঙ্গার রূপ নেয়। এই দাঙ্গার কারণে মসজিদটি সম্পূর্ণরূপে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যে কারণে ওই একই সালে ভারতের প্রধান শহরগুলোতে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। ছড়িয়ে পড়া এসব দাঙ্গার মধ্যে কেবলমাত্র মুম্বাই ও দিল্লীতেই অন্তত দুই হাজার মানুষের প্রাণহানী ঘটে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...