পহেলা বৈশাখ: ইলিশের বাজারে আগুন!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ পহেলা বৈশাখের জন্য বাজারে জিনিসের দামে আগুন লেগেছে। প্রথমত ইলিশ মাছের দাম এখন আকাশছোঁয়া। অপরদিকে গরুর মাংস, মুরগিসহ অন্যান্য পণ্যের দামও বেড়ছে কয়েকগুণ।

Hilsa market on fire

পহেলা বৈশাখ এলে ইলিশ মাছের দাম বাড়ে, সেটিই স্বাভাবিক। তবে এবার বাজারে গরুর মাংস হতে শুরু করে অন্যান্য পণ্য সামগ্রির দামও বেড়েছে কয়েকগুণ বেশি।

ছোট ছোট ইলিশ যেগুলো ৩শ’ টাকা কেজি এতোদিন বিক্রি হতো, সেগুলো বৈশাখের জন্য এখন ৮শ’ বা ৯শ’ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর বড় ইলিশ যেগুলো এক কেজি ওজনের সেগুলো আগে ৯শ’ বা এক হাজার টাকায় বিক্রি হতো। সেগুলো এখন ৩ থেকে ৪ হাজার টাকায় বিক্রি করতে দেখা যাচ্ছে। যা সাধারণ মানুষের পক্ষে কিনে খাওয়া অসম্ভব ব্যাপার। যদিও ওইসব মাছ কেনার ক্রেতাও রয়েছে বাজারে। তারা কিনছেন বেশ স্বাচ্ছন্দেই! কিন্তু সেটি হাতে গোণা কিছু মানুষের ক্ষেত্রে ঘটছে। অতি সাধারণ মানুষের পক্ষে ইলিশ মাছের কাছে যাওয়া যেনো দুষ্কর ব্যাপার।

বৈশাখকে সামনে রেখে গরুর মাংসের দাম বেড়েছে অনেক। ৩৮০ টাকা কেজির গরুর মাংস গত কাল মঙ্গলবার থেকে বিক্রি হচ্ছে ৪২০ টাকা হতে সাড়ে ৪শ’ টাকা কেজি দরে! আজ বুধবার কিংবা আগামীকাল বৃহস্পতিবার হয়তো আরও বাড়তে পারে। মুরগির দামও দেড়শ’ টাকা কেজি হতে বেড়ে ১৭০/১৮০ টাকা কেজি দামে বিক্রি হচ্ছে। এসব পণ্যের দাম বেড়েছে কেবলমাত্র পহেলা বৈশাখের কারণে। কারণ পহেলা বৈশাখে বাঙালিদের রেওয়াজে পরিণত হয়েছে পান্তা ইলিশের। যে কারণে এ সময় এক শ্রেণীর ব্যবসায়ীরা মুনাফা করে নিচ্ছে। তাছাড়া এ সময় চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কম থাকার কারণেও জিনিসের দাম বেড়ে যায়। এভাবে প্রতিটি জিনিসের দাম বেড়ে গেছে কয়েকগুণ। তবুও বাঙালিরা তাদের হাজার বছরের কৃষ্টি-কালচার ধরে রেখেছেন।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...