এক ভূতের শহরের কাহিনী!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভূতের কথা শুনলে যে কারও গা শিরশির করতে পারে। তবে আজ রয়েছে এমন একটি শহরের গল্প সেই ভূতের শহর টেক্সাসের রিচটাইম কাহিনী!

story of a ghost town

এই কথিত ভূতের শহর মার্কিন মুলুকের দ্বিতীয় জনবহুল স্টেট টেক্সাসে। উন্নয়নের বিচারে আমেরিকার ৫০টি স্টেটসের তালিকায় টেক্সাস একেবারে ওপরে রয়েছে। পেল্লাই সব অট্টালিকা, গগণচুম্বী অফিস, আর বাড়ি-গাড়ি জঙ্গল সবকিছুই। তবে এসবের বাইরেও টেক্সাসের পৃথক একটা পরিচিতি রয়েছে। টেক্সাসে রয়েছে ২০০টা ঘোস্ট টাউন কিংবা ভূতের শহর।

অ্যাডব ওয়ালস হতে গ্লোরি, বেস্ট হতে হাইড টাউন। এরকম অনেক নাম টেক্সাসের ভূতের শহরে। যারা এসব শহরে যাতায়াত করেন তারা বলেন, রাতে নাকি সত্যিই গা’টা একটু ছমছম করবেই। যদিও যুক্তিবাদীরা বলছেন ভিন্ন কথা। তারা বলছেন, ওসব কিছু নয়, শহরগুলো বেশ ফাঁকা বলেই মনের মধ্যে ওরকম ছম ছম মনে হয়।

এখন শুনুন টেক্সাসের সেইসব ২০০টি ভূতের শহরের মধ্যেই একটার কথা। শহরটার নাম ‘রিচটাইম’। আরামদায়ক এখানকার পরিবেশ।

১৮৭০ সালে এই শহরে মানুষ থাকা শুরু করে। সিজি মালি ও জন উইড নামে দুই ব্যক্তি প্রথমে থাকতে শুরু করেন। ১৯১০ সালের দিকে এই শহর একেবারে ভরে ওঠে। তবে কোনও এক কারণে ১৯৪০ সাল হতে মানুষ এই শহর ছাড়তে শুরু করে দেয়। অনেকে বলেন যে, চাকরির খোঁজেই মানুষ এই শহর ছাড়ছে।

১৯৫৮ সালে এসে দেখা যায় যে, শহরটা পুরো ফাঁকা। রয়েছে শুধু একটা স্কুল, একটা চার্চ। স্কুলে কেও নেই। চার্চেও কেও যায় না। তারপর হতেই ভূতুড়ে শহর হিসেবে পরিচিতি পায় এই শহরটি। অবশ্য সাহসীরা ঘুরতে যান এই শহরে।

Advertisements
Loading...