মানুষ বোঝে না কিন্তু গরু বোঝে ওভারব্রীজে দিয়ে পার হতে হয়!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ওভারব্রীজ বানানো হয় জীবনের ঝুঁকি এড়াতে সেটি দিয়ে পার হতে। কিন্তু আমরা অনেকেই বুঝি না। যেমন এই ছবির গরুগুলো কিন্তু ঠিকই বুঝেছে!

People do not understand, understand cow

আমাদের দেশের এমন অনেক ওভারব্রীজ রয়েছে। যেগুলো দিয়ে মানুষ পার হয় না। দেখে মনে হয় অযথা বানানো হয়েছে ওভারব্রীজটি। অর্থাৎ সচেতনার অভাবে কোটি কোটি টাকা খরচ করে বানানো ওভারব্রীজগুলো অব্যবহৃত রয়ে গেছে। এমন কিছু ওভারব্রীজ রয়েছে যেগুলো অব্যবহৃত থাকায় মর্চে ধরে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অথচ জীবনের ঝুঁকি যাতে না থাকে সেজন্যই বানানো হয়েছে ওভারব্রীজগুলো।

আজকের ছবিটি দেখে নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন। মানুষের ব্যবহারের জন্যে ওভারব্রীজটি বানানো হয়েছিল। অথচ মানুষ এটির ব্যবহার করছে না, করছে বোবা প্রাণী গরু! মানুষ সচেতন প্রাণী হলেও অসচেতনভাবেই রাস্তা পার হয়ে থাকে।

আর তাই মানুষের যা করা উচিত তা অন্য প্রাণীরা কখনও কখনও করে মানুষের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়েও দিয়ে থাকে। যেমন এই ওভারব্রীজ দিয়ে গরুগুলো পার হয়ে মানুষকে দেখিয়ে দিলো।

টুইটারে প্রাক্তন ভারতীয় জাতীয় দলের ক্রিকেটার বীরেন্দ্র শেহওয়াগের শেয়ার করা একটি ছবি দেখলে সেটিই প্রমাণিত হয়।

এই ছবিটি নাইজেরিয়ার কোনো একটি শহরের ছবি। যেখানে একটি ওভারব্রীজ দিয়ে রাস্তা পার হতে দেখা যাচ্ছে এক পাল গরুকে! তারা যে পথটি ব্যবহার করেছে, যা তাদের কথা ভেবে তৈরি করা হয়নি। সেটি যাদের জন্য তৈরি করা হয়েছে, তারা পারতপক্ষে তা মাড়ায় না! হাজারো গাড়িকে পাশ কাটিয়েই ব্যস্ততম রাস্তা পার হতে দেখা যায় সেইসব বুদ্ধিমান মানুষদের, তাতে যতোই জীবনের ঝুঁকি থাক।

বীরেন্দ্র শেহওয়াগ ছবিটির ক্যাপশনও দিয়েছেন যথার্থই। তিনি লিখেছেন, ‘যা মানুষ করতে পারে না, তা গরুরা পারে’!

এই ছবি বা লেখাটি পড়ে আমাদের দেশের অসচেতন মানুষগুলোর একটু হলেও সচেতন হবেন সেটিই আমাদের প্রত্যাশা।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...