ভূকম্পন: মিয়ানমারে বিপুল প্রত্নতাত্ত্বিক ক্ষয়ক্ষতি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আজ (বুধবার) বিকেলে ভূমিকম্প আঘাত হানায় বাংলাদেশে ক্ষয়ক্ষতির খবর না পাওয়া গেলেও মিয়ানমারে বিপুল প্রত্নতাত্ত্বিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে।

mynamar pagoda quake

আজ (বুধবার) বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪.৩৪ মিনিটে এই ভূকম্পন অনুভূত হয়। রাজধানী ঢাকাসহ কেঁপে ওঠে সারাদেশ। রিখটার স্কেলে ৬.৮ তীব্রতার একটি বড় সড় ভূমিকম্প আঘাত হানার পর বাংলাদেশ এবং পূর্ব ভারতের বিভিন্ন অংশেও সেই তীব্র কম্পন অনুভূত হয়েছে। এ সময় কেঁপে ওঠে সমগ্র দেশ। অনেকেই ভয়ে ভবন থেকে বেরিয়ে আসেন। তবে বাংলাদেশে ক্ষয়ক্ষতির কথা এখনও জানা যায়নি।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পে মিয়ানমারের বাগান শহরের বহু মন্দির এবং প্যাগোডা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ইউ এস জিওলজিক্যাল সার্ভে বলেছে, এই ভূমিকম্পের এপিসেন্টার ছিলো মিয়ানমারে চাউক শহর হতে ২৫ কিলোমিটার পশ্চিমে।

উৎপত্তিস্থানের খুব কাছেই রয়েছে প্রত্নতাত্ত্বিকভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মিয়ানমারের বাগান শহর, যেখানে অন্তত হাজার দুয়েক প্রাচীন বৌদ্ধ মন্দির এবং প্যাগোডা রয়েছে। এগুলো শত শত বছরের পুরনো।

‘বাগান টেম্পলস’ নামে পরিচিত এই মন্দির এবং প্যাগোডাগুলোকে অনেকে কাম্বোডিয়ার বিখ্যাত আংকোর ওয়াট মন্দিরের সঙ্গে তুলনা করেন।

মিয়ানমারের আর্কিওলজিক্যাল ডিপার্টমেন্টের পক্ষ হতে বিবিসিকে জানানো হয়েছে, ভূমিকম্পে বিভিন্ন প্যাগোডার অন্তত ৬৬টি ‘স্তূপ’ ভেঙে পড়েছে কিংবা আংশিখ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে ভূমিকম্পে হতাহতের খবর এখনও পাওয়া যায়নি।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...