দুই পা না থাকলেও হয়েছেন সেরা সাঁতারু!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কিয়ান হঙ্গিয়ান এবং তার পরিবার চীনে বসবাস করেন। ২০০০ সালে এক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই পা হারান। পা না থাকলেও হয়েছেন সেরা সাঁতারু!

best-swimmers-and-two-legs

যখন তার বয়স ছিল মাত্র ৪ বছর। তখন তিনি চীনের পশ্চিম-দক্ষিণের ইউনান প্রদেশের একটি গ্রামীণ পরিবেশে বেড়ে ওঠেন।

পা না থাকলেও আস্তে আস্তে তার হাতের উপর ভর করে হাঁটতে শিখেন। কারণ হলো তার কোমরের নিচের সম্পূর্ণ অংশও কাঁটা পড়েছিল ওই দুর্ঘটনায়। সে তার কোমরে বাস্কেট বল নিয়ে খেলা শুরু করেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যে তিনি তার এলাকায় ‘বাস্কেট বল মেয়ে’ হিসেবে পরিচিতি পান।

তাকে জনসম্মুখে নিয়ে আসে চীনের মিডিয়া ২০০৫ সালে। এরপর তাকে বেইজিং এ নিয়ে এসে তার পায়ে আর্টিফিশিয়াল পা লাগানোর ব্যবস্থা করা হয়। চীনের ‘রিহ্যাবিলিটেশন রিসার্চ সেন্টার’ এ তার বিনামূল্যে চিকিৎসাও করা হয়। এই সংস্থাটি বিগত ২০ বছর ধরে প্রতিবন্ধীদের সহায়তা করে আসছে।

তবে তার নতুন কৃত্রিম পা পাওয়ার পর হতে সে আর বিদ্যালয়ে যেতে পারে নি। সে জাতীয় সাঁতার ক্লাবে যোগদান করে ও প্রতিবন্ধীদের সাঁতারে প্রতিযোগিতা করেন।

প্রথমদিকে সাঁতার শেখা অনেক কঠিন মনে হলেও পরবর্তীতে তার কঠোর পরিশ্রমের কারণে তিনি সকল বাঁধা পেরিয়ে এগিয়ে যান। তার অক্ষমতা থাকা সত্ত্বেও তিনি শুধু সামনের দিকে এগিয়ে চলেন। এখন তিনি তার দেশের জন্য বিজয়ী হতে চান।

Advertisements
Loading...