গোপনে মুসলিম হওয়ার পর অপু যেভাবে রোজা রাখতেন!

অপু জানিয়েছে, আমি বিয়ের পর হতেই রোজা রাখি। এমনকি ইসলাম ধর্মের অন্যান্য ইবাদতও আয়ত্ব করেছি ধীরে ধীরে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শাকিব খানকে বিয়ে করার সময় খুব গোপনে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন অপু বিশ্বাস। নাম রাখেন অপু ইসলাম খান। অপু বিশ্বাস সে সময় যেভাবে রোজা রাখতেন তা জানিয়েছেন সংবাদ মাধ্যমকে।

রমজান উপলক্ষ্যে মিডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অপু জানিয়েছে, আমি বিয়ের পর হতেই রোজা রাখি। এমনকি ইসলাম ধর্মের অন্যান্য ইবাদতও আয়ত্ব করেছি ধীরে ধীরে।

অপু বলেছেন, মুসলিম হবার পর হতে আমার মধ্যে ইসলাম নিয়ে অনেক বেশি কৌতূহল কাজ করেছে। বিয়ের পর হতেই আমি ইসলাম ধর্মের সকল বিষয়গুলো নিজে থেকেই শিখতে শুরু করি। খুঁটিনাটি বিষয় আস্তে আস্তে জানার চেষ্টা করেছি। কিভাবে অজু করতে হয়, কিভাবে নামাজ পড়তে হয়ে, রোজা রাখতে হয় সবকিছুই আমি আয়ত্ত করতে থাকি। বই পড়ে ও আমার এক আত্মীয়ের সাহায্য নিয়ে আমি সবকিছু শিখেছি।

অপু বর্তমানে নিয়মিত রোজা রাখেন। খুব বেশি সমস্যা না হলে তিনি রোজা ভাঙেন না। তিনি বলেছেন, বিয়ের প্রথম বছর রোজার বিষয়টা বুঝতে একটু সময় লেগেছিল। তাই প্রথম বছর রোজা আমি রাখতে পারিনি। তবে বিয়ের এক বছর পর হতে আমি নিয়মিত রোজা রাখি। সবগুলো না রাখতে পারলেও প্রতিবছর ২০টার উপর রোজা রাখার চেষ্টা করেছি।

সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, রোজা রাখতে অপু বিশ্বাসের তেমন একটা সমস্যা হয় না। কারণ হলো হিন্দু ধর্মের নিয়মানুসারে তিনি আগেও নিয়মিত উপোস করতেন। তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই অপু রোজা রাখতে পারেন। সাধারণত শুটিংয়ের কাজে বাইরে না থাকলে শাকিব-অপু একসঙ্গেই সেহরি ও ইফতার করেন। অপু বলেছেন, আমি সবসময় সেহরি রেডি করে বসে থাকি। তবে শাকিব ঘুম হতে উঠতে দেরি করে। অনেক সময় টাইম না পাওয়ায় এক গ্লাস দুধ অথবা আম খেয়েই সে সেহরি করে।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, রোজা নিয়ে এই তারকা দম্পতির রয়েছে বেশকিছু মজার অভিজ্ঞতাও। যেহেতু অপুর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করা ও বিয়ের ব্যাপারটি গোপন ছিল, তাই শুটিংয়ের সময় অপুর রোজা রাখতে বেশ সমস্যাই পড়তে হয়েছে। অপু বলেছে, রোজার সময় শুটিং থাকলে আমাকে বেশ সমস্যায় পড়তে হতো। কারণ হলো সেটে একটু পরপর প্রডাকশনের লোকেরা খাবার নিয়ে আসতো। আমি নানা টালবাহানা করে তাদেরকে ফিরিয়ে দিতাম। কখনও বলতে পারতাম না আমি রোজা আছি।

অপু বলেছেন, একবার শুটিং সেটে দারুণ একটা মজার ঘটনাও ঘটেছিল। সেখানে আমার একটা সিকোয়েন্স ছিল যেটাতে আমাকে খাবার খেতে হবে। অথচ তখন আমি রোজা। সিকোয়েন্সটাতে শাকিবও ছিল। সুমন ভাই যখন আমাকে শর্ট বুঝিয়ে দিচ্ছিলেন ঠিক তখন শাকিব বলে উঠলো, সুমন এখন খাবার খাচ্ছে এটা কি দেখানো লাগে? বরং খাচ্ছে এমন সিকোয়েন্স না নিয়ে, খেতে গিয়ে হাত হতে খাবার পড়ে গেলো সেটা নাও। সেটাই বেশি ভালো হবে। ওর কথা শুনে সেদিন আমি খুব হেসেছিলাম। শাকিব আমার রোজার কথা গোপন রাখতে গিয়ে সেদিন সিকোয়েন্স পাল্টে দিয়েছিলো। সেদিন শাকিবের কথা মতোই শুটিং করা হলো।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...