তিন বছর একই স্থানে মালিকের অপেক্ষায় এক পোষ্য কুকুর!

দক্ষিণ কোরিয়ার ফু শি নামের এই কুকুরটিকে সারা পৃথিবীর মানুষই এখন চিনে ফেলেছে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রভুভক্ত যাকে বলে ঠিক তেমনই একটি ঘটনা এবার ঘটেছে দক্ষিণ কোরিয়ার বুশানে। প্রভুভক্ত এক পোষ্য কুকুর টানা তিন বছর একই স্থানে মালিকের অপেক্ষায় বসে রয়েছে!

ঘটনাটি আসলে প্রথম দিকে কেও বুঝতেও পারিনি। প্রতিদিন রাস্তার ধারে বসে থাকে কুকুরটি। দেখণে মনে হবে কারও প্রতীক্ষায় বসে আছে সে। কিন্তু যখন দিনের পর দিন মাসের পর মাস এবং বছরের পর বছর বসে থাকতে দেখে সবাই তখন বিষয়টি জানা জানি হয়। প্রভুভক্ত এই কুকুর এখন ইন্টারনেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার ফু শি নামের এই কুকুরটিকে সারা পৃথিবীর মানুষই এখন চিনে ফেলেছে। তার এই বসে থাকার ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল। তবে তার এমন বসে থাকার কাহিনী সত্যিই এক দুঃখের কাহিনী।

দক্ষিণ কোরিয়ার বুশানের বাসিন্দা এক বৃদ্ধা এই কুকুর ফু শি-কে নিজের কাছে রেখেছিলেন বেশ কয়েক বছর ধরে। বেশ সুখেই দিন কাটছিল ফু শি এবং তার মালিকের। তবে ৩ বছর পূর্বে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হওয়ায় অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই বৃদ্ধা। তাকে একটি নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়। এদিকে ফাঁকা বাড়িতে তার অপেক্ষায় দিন কাটতে থাকে পোষ্য কুকুর ফু শি-র। তারপর একদিন নার্সিং হোমে মারা যান ওই বৃদ্ধা। সেই থেকে বেচারি পোষ্য অপেক্ষায় রয়েছে তার মালিকের। বেচারি ফু শি তো জানে না, তার মালিক আর ফিরবেন না।

প্রতিদিন সকালে নিয়মতভাবে রাস্তার ধারে একটি নির্দিষ্ট স্থানে ফু শি’র অপেক্ষা করার দৃশ্য চোখে পড়ে প্রতিবেশীদের। তারাই নিজেদের খাবারের উচ্ছিষ্টও খেতে দিতেন ফু শিকে। তবে দিন যতো যাচ্ছিল তারা দেখতে পাচ্ছিলেন, ক্রমশ ভেঙে পড়ছে ফু শি। খাওয়া-দাওয়াতে তার একেবারেই আগ্রহ নেই। শেষ পর্যন্ত পশু চিকিৎসকদের খবর দেয় প্রতিবেশীরা। চিকিৎসা শুরু হয় ফু শি’র।

ফু শি’র ঘটনা অনেককে মনে করিয়ে দেয় হাচিকোর কথা। যাকে নিয়ে অসাধারণ এক সিনেমাও তৈরি হয়ে গেছে। সেও তার মালিকের জন্য অপেক্ষায় ছিল দীর্ঘ ৯ বছর ধরে! অবশেষে মৃত্যুর পর তার অপেক্ষার শেষ হয়েছিল।

তবে ফু শি’র কাহিনীর শেষটা বিয়োগান্তক নয়। একটি পরিবার মিডিয়ার দৌলতে ছড়িয়ে পড়া ফু শি’র খবরে মর্মাহত হয়ে পড়েন। তারা তাদের বাড়িতে নিয়ে এসেছেন ফু শি’কে। এখন নতুন মালিকদের সঙ্গে দিব্যি দিন কাটাচ্ছেন ফু শি। এখন অবশ্য তার নাম ফু শি পরিবর্তন করে তার নাম এখন রাখা হয়েছে স্কাই।

Advertisements
Loading...