The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ট্রাম্প-পুতিন গোপন বৈঠক প্রসঙ্গ: বিশ্ব রাজনীতি কোন দিকে যাচ্ছে?

ট্রাম্প ও পুতিন আনুষ্ঠানিক শীর্ষ বৈঠকে মিলিত হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর দ্বিতীয় দফায় আরেকটি বৈঠকও করেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ট্রাম্প-পুতিন গোপন বৈঠক নিয়ে বিশ্বব্যাপী তোলপাড় শুরু হয়েছে। যদিও ট্রাম্প নিজেই এই বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছেন। কিন্তু তারপরও বিষয়টি নিয়ে বিশ্বের অন্যান্য শক্তিধর রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে শুরু হয়েছে নানা হিসাব-নিকাশ। তাহলে কী বিশ্ব রাজনীতির পট পরিবর্তন ঘটতে যাচ্ছে? বিশ্ব রাজনীতি কোন দিকে যাচ্ছে? নানা প্রশ্ন উঠে এসেছে।

ট্রাম্প-পুতিন গোপন বৈঠক প্রসঙ্গ: বিশ্ব রাজনীতি কোন দিকে যাচ্ছে? 1

সংবাদ মাধ্যমের একটি খবর। আর খবরটি হলো ‌‘ট্রাম্প-পুতিন গোপন বৈঠক ফাঁস’। এমন একটি খবর বিশ্বের রাজনীতিকে এক অন্যধারায় নিয়ে গেছে। খবরে বলা হয়, জি-২০ সম্মেলনে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে গোপনে একটি বৈঠক করেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউজও নাকি বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। যদিও এই বৈঠকের বিষয়টি প্রকাশ করা হয়নি। হোয়াইট হাউজ বলেছে, এই মাসের শুরুতে জার্মানিতে জি-২০ সম্মেলনে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ভ্লাদিমির পুতিন আনুষ্ঠানিক শীর্ষ বৈঠকে মিলিত হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর দ্বিতীয় দফায় আরেকটি বৈঠকও করেন, যা এ পর্যন্ত গোপন রাখা হয়। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো এমন একটি খবর প্রকাশ করে।

জানানো হয়েছে, একজন রুশ দোভাষীর উপস্থিতিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রায় এক ঘণ্টাব্যাপী পুতিনের সঙ্গে পোপন আলাপ করেন। তবে কি বিষয় নিয়ে আলাপ হয়েছে এই দুই নেতার সে বিষয়ে কিছুই জানায়নি হোয়াইট হাউজ।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলোতে বলা হয়েছে, জি-২০ সম্মেলনে ডিনারের মাঝপথে নিজের আসন ছেড়ে উঠে গিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প পুতিনের পাশের একটি খালি চেয়ারে বসে বেশ কিছুক্ষণ কথাবার্তা বলেন। ট্রাম্প ওই সময় একাই ছিলেন। তবে পুতিনের সঙ্গে ছিলেন তার দোভাষী।

এদিকে এই বিষয়টি নিয়ে বিশ্ব রাজনীতিতে শুরু হয়েছে নানা আলোচনা। মার্কিন নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সহযোগিতা করে জিতিয়ে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে নির্বাচনের পর থেকেই। আবার গোপন বৈঠকের এই খবরটি সেইসঙ্গে আরেক মাত্রা যোগ করলো বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার সম্পৃক্ততা আদোতেও ছিল কি না, সে বিষয়টি নিয়ে ওয়াশিংটনে তদন্তও চলছে। আর এমন সময় গোপন বৈঠকের এই খবরটি বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। রাশিয়া ও আমেরিকার মধ্যে তিক্ততার সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। কিন্তু গত মার্কিন নির্বাচনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সহযোগিতার বিষয়টি উঠে এলে রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রীয় নীতি কোন দিকে যাচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্নের উদ্রেক সৃষ্টি করে। বিশ্লেষকরা মনে করছেন, গত নির্বাচনের হিলারীকে পরাজিত করা ও ট্রাম্পের জয়ী হওয়ার বিষয়টিও সে কারণে প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে। তবে হয়তো আরও কিছুটা সময় বিশ্ববাসীকে অপেক্ষা করতে হবে। তাহলে হয়তো পরিষ্কার হওয়া যাবে পুরো বিষয়টি।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...