এমন এক হ্রদ যে হ্রদে যুগ যুগ ধরে ফুটেই চলেছে কাঁদা মাটি!

নিউজিল্যান্ডের উত্তর দ্বীপপুঞ্জে এটি অবস্থিত

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন হ্রদ আমরা আগে কখনও দেখিনি। যে হ্রদে যুগ যুগ ধরে ফুটেই চলেছে কাঁদা মাটি! দেখতে অনেকটা মৃত শিল্পের কাজের মতো।

মাঝে মধ্যেই পৃথিবীতে এমন কিছু কাণ্ড চোখে পড়ে যা দেখলে বিস্মিত হতে হয়। বিশ্বের মানুষ এমন কিছু দৃশ্য দেখে অবাক হয়ে যান। অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকতে হয় এইসব রহস্যময় সৃষ্টির রহস্য দেখে। স্রষ্টার সৃষ্টির যেনো সবকিছুতেই রহস্য থেকে যায়। যেমন রহস্যময় আজকের এই হ্রদটি। নিউজিল্যান্ডের রোটোরুয়া শহরের টাওপো নামক এক লেকের গল্প এটি। আসলে এটি একটি আজব হ্রদ। নিউজিল্যান্ডের উত্তর দ্বীপপুঞ্জে এটি অবস্থিত।

জেনে আপনিও অবাক হবেন এই লেকে ফুটন্ত কাঁদা-মাটি দেখতে পাওয়া যায়। অর্থাৎ আগুনে কোনো তরল দ্রব্য অনেকক্ষণ ধরে ফোটালে যেমন টগবগ করে ফুটতেই থাকে ঠিক তেমন এই লেকের কাদামাটিগুলো সর্ব সময় টগবগ করে ফুটেই চলেছে। এই হ্রদ নিয়ে গবেষকদের গবেষণার যেনো শেষ নেই। কিন্তু এখন পর্যন্ত গবেষকরা কোনো রকম কুল-কিনারা খুঁজে পাননি।

গবেষকদের মতে, নদী এবং লেকের পানি নির্দিষ্ট এই স্থানে উত্তপ্ত পাথরের উপরে প্রবাহিত হয় বলেই এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তবে বিশ্বের অন্যান্য স্থানে আগ্নেয় দ্বীপে এরকম কাদার হ্রদ তৈরি হয় যার নীচ থেকে গ্যাস বেরিয়ে আসে অনেকটা বুদবুদের মততো। তারপর এগুলো চুড়ার মতো উঁচু হয়ে মাড ভলকানো সৃষ্টি করে থাকে।

আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের আন্দামান ও নিকোবর দীপপুঞ্জেও মাড ভলকানো রয়েছে। যদিও এই লেকের সঙ্গে মাড ভলকানোগুলোর কিছু অমিলও রয়েছে। সত্যি এই হ্রদ হলো দেখার মতো একটি আজব হ্রদ। প্রতিবছর হাজার হাজার দর্শনার্থী ভিড় করেন এই দর্শনীয় স্থানে। তারা এখানকার ফুটন্ত কাদামাটি দেখে বিস্মিত হন।

Advertisements
Loading...