বুকের দুধ বিক্রি করে কোটিপতি!

২৪ বছর বয়সী রাফেলা অন্য শিশুদের জন্য বাড়তি দুধ বিক্রি করতে শুরু করে দেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সন্তানের জন্য মায়ের বুকের দুধের বিকল্প নেই। এই কথাটি বাস্তব সত্যি। তাই চিকিৎসকরা মায়ের বুকের দুধ পান করানোর পরামর্শ দেন। এমনই এক মা এবার বুকের দুধ বিক্রি করে হয়েছেন কোটিপতি!

আমরা সকলেই জানি শিশুদের জন্য মায়ের দুধের কোনো বিকল্প নেই। মায়ের দুধের উপকারিতার কথা গবেষণায় প্রমাণিত ও সর্বজন স্বীকৃত একটি বিষয়। তবে এই বুকের দুধ যদি বিক্রির মতো ব্যবসা করার কথা আগে কখনও শোনা যায়নি। এবার এমনই একটি খবর বেরিয়েছে। কারণ বুকের দুধ যে শুধু শিশুদের খাদ্য ও উপকারী তাই নয়, এই বুকের দুধ বডি বিল্ডারদের কাছেও নাকি কদর রয়েছে। কারণ হলো পেশীশক্তি বাড়াতে নাকি নারীর বুকের দুধ খুবই উপকারি। সে কারণে বডিবিল্ডারদের কাছে বুকের দুধ বিক্রি করে কোটিপতি হয়ে গেছেন সাইপ্রাসের এক রমনী।

সাইপ্রাসের রাফেলা ল্যাম্পরুউ নামে ওই নারী ৭ মাস পূর্বে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। সন্তান হওয়ার পর হতে তিনি বুঝতে পারছিলেন ছেলেকে খাওয়ানোর পরও অনেক বুকের দুধ রয়ে যাচ্ছে। এরপর ২৪ বছর বয়সী রাফেলা অন্য শিশুদের জন্য বাড়তি দুধ বিক্রি করতে শুরু করে দেন। এতে করে তার বেশ কিছু টাকা আয় হতে থাকে।

যাদের বুকের দুধ তৈরি হয় না- এমন মায়ের শিশু-সন্তানদের জন্য বুকের দুধ বিক্রি করছিলেন রাফেলা ল্যাম্পরুউ। এর একপর্যায়ে কয়েকজন বডিবিল্ডার তার কাছে আসেন বুকের দুধ কিনতে। পেশীশক্তি বাড়ানোর ক্ষেত্রে নাকি বুকের দুধের কার্যকারিতা অনেক বেশি। সে কারণেই তারা নানা রকম রাসায়নিক সাপ্লিমেন্টের পরিবর্তে মায়েদের বুকের দুধ কিনে খেয়ে থাকেন। চীনসহ বেশ কিছু দেশেও মাতৃদুগ্ধ বিক্রির প্রচলন রয়েছে।

এনডিটিভি’র এক খবরে বলা হয়েছে, এভাবেই বডিবিল্ডারদের বুকের দুধ বিক্রি করে ইতিমধ্যে রাফেলা ল্যাম্পরুউ প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা রোজগার করে ফেলেছেন! দুধ বিক্রির বিষয়টি প্রচার করতে নিজের একটি ওয়েবসাইটও তৈরি করেছেন রাফেলা। বর্তমানে দুই পুত্রসন্তানের মা রাফেলা। স্বামী অ্যালেক্স এবং দুই সন্তানকে নিয়ে তার সংসার বেশ সুখেই কাটছে। তার ব্যবসাও চলছে। আর এভাবেই রাফেলা ল্যাম্পরুউ এখন একজন কোটিপতি।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...