কিভাবে চোখের পাতা লাফানো বন্ধ করবেন? জেনে নিন তার সমাধান

চোখে সামান্য একটু সমস্যা হলেই নিজের কাছে খুব খারাপ লাগে। আর সেটা যদি চোখ লাফানো হয়, তাহলে আরো বিরক্তিকর

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ স্বাভাবিক অবস্থায় হঠাৎ করে আপনার চোখের পাতা লাফানো শুরু করলো।এটা একটা খুবই বিরক্তিকর ব্যাপার। নিজের কাছে তখন খুব অসস্তি লাগে। কিন্তু কেন চোখের পাতা লাফায় জানেন কী? চোখের পাতা লাফানোর বেশ কিছু কারণ রয়েছে।

মানসিক চাপ :

বিভিন্ন কারণে আমরা অনেক সময় কঠিন মানসিক চাপের মধ্যে থাকি। আর এই মানসিক চাপ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রতঙ্গের উপর প্রভাব ফেলে। চোখ লাফানো তার মধ্যে একটি।

দৃষ্টিগত সমস্যা :

চোখের বিভিন্ন সমস্যার কারনে চোখ লাফাতে পারে। শারীরিক দুর্বলতা তার মধ্যে অন্যতম। অনেক সময় টিভি, কম্পিউটার বা মোবাইলের স্কিনে একভাবে তাকিয়ে থাকলে স্কিনের আলো চোখের উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলে। এ কারনে চোখ লাফাতে পারে।

অধিক মাত্রায় ক্যাফিন ও অ্যালকোহল সেবন :

চক্ষু বিশেষজ্ঞরা মনে করেন অতিরিক্ত মাত্রায় ক্যাফিন ও অ্যালকোহল পান করার কারনে চোখের উপর তার প্রভাব পরে । তাই চোখের পাতা লাফাতে পারে।

চোখে পানি শুন্যতা :

চক্ষু বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, চোখের পানি শুন্যতার কারণে চোখ ঠিক মত কাজ করতে পারে না। তাই চোখ লাফাতে পারে।

চোখের এলার্জি :

মানুষের শরীরে বিভিন্ন রকম এলার্জি রয়েছে। চোখের এলার্জি সমস্যার কারনেও চোখ লাফাতে পারে।

শারীরিক দুর্বলতা :

শারীরিক দুর্বলতার কারনে চোখে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। চোখের পাতা লাফানো তার মধ্যে একটি। এছাড়া পর্যাপ্ত পুষ্টির অভাবেও চোখের পাতা লাফাতে পারে।

ঘুম কম হওয়া :

আমরা ব্যস্ততা বা বিভিন্ন কারনে অনেক রাত জেগে থাকি। তাই পর্যাপ্ত ঘুম হয় না।প্রকৃতপক্ষে চোখের একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ বিশ্রামের প্রয়োজন রয়েছে। সুতরাং ঘুম কম হওয়ার কারণেও চোখ লাফাতে পারে।

এই সমস্যা থেকে উত্তোরণের উপায় :

চক্ষু বিশেষজ্ঞরা মনে করেন,

১। নিয়মিত পর্যাপ্ত পরিমাণে পুষ্টি সম্মত খাবার খাওয়া ও পানি পান করলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

২। পর্যাপ্ত ঘুমানো এই সমস্যা থেকে সমাধান দিতে পারে।

৩।অ্যাকোহল জাতীয় পানীয় কম পরিমাণ পান করতে হবে।

৪। টিভি, কম্পিউটার, ল্যাপটপ বা মোবাইলের স্কিনে কম তাকানোর চেষ্টা করতে হবে। প্রয়োজনে এগুলো ব্যবহার করার সময় প্রতি ১০ মিনিট পরপর ১০-১৫ সেকেন্ড চোখ বন্ধ করে রাখুন। এবং চোখ খুলে কিছুক্ষন দূরে তাকিয়ে থাকুন। তবে সবুজ প্রকৃতি বা গাছের দিকে তাকিয়ে থাকলে ভাল কাজ করে।

৫। মানসিক চাপকে নিজের কাছে সহজভাবে নিতে হবে।

৬। ধুলাবালি থেকে চোখকে রক্ষা করতে প্রয়োজনে চশমা ব্যবহারের অভ্যাস করতে হবে। তবুও চোখ লাফানো ভাল না হলে কোন চক্ষু চিকিৎসককে দেখাতে পারেন।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...