প্রযুক্তি পণ্যে এমআরপি কার্যকর হচ্ছে ২২ জুলাই হতে

প্রযুক্তি পণ্যের উপর যে স্টিকার থাকবে, সেই স্টিকারের কম বা বেশি মূল্যে কম্পিউটার বা কম্পিউটারের যন্ত্রাংশ বিক্রি করলে জরিমানার বিধানও রাখা হয়েছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রযুক্তি পণ্যে এমআরপি কার্যকর হচ্ছে আগামীকাল ২২ জুলাই হতে। এই লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই চূড়ান্ত করা হয়েছে এমআরপি নীতি। এর আওতায় ২২ জুলাই হতে প্রযুক্তি পণ্যে বাধ্যতামূলকভাবে যুক্ত থাকবে এমআরপি স্টিকার।

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে বিসিএস ইনোভেশন সেন্টারে ‘এমআরপি নীতিমাল বাস্তবায়ন, প্রক্রিয়া ও প্রস্তুতি’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় এমআরপি নীতি চূড়ান্তকরণের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

ওই সভার শুরুতে প্রস্তাবিত এমআরপি নীতিমালা পড়ে শোনান বিসিএস সভাপতি প্রকৌশলী সুব্রত সরকার। এমআরপি নীতিমালা অনুসারে, ২২ জুলাই হতে কম্পিউটারসহ এই সংক্রান্ত সব যন্ত্রাংশে এমআরপি স্টিকার লাগানো বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। প্রযুক্তি পণ্যের উপর যে স্টিকার থাকবে, সেই স্টিকারের কম বা বেশি মূল্যে কম্পিউটার বা কম্পিউটারের যন্ত্রাংশ বিক্রি করলে জরিমানার বিধানও রাখা হয়েছে। কোনো প্রতিষ্ঠান নিয়ম ভঙ্গ করলে বিবেচনামত শাস্তির বিধানও রাখা হয়েছে। সতর্কিকরণ নোটিশ প্রদান, সরবরাহকারী, আমদানিকারক ডিস্ট্রিবিউটর পেন্ডিং অর্ডার বাতিল, বিসিএস-এর সদস্যপদ প্রত্যাহারসহ সর্বনিম্ন ৫ হাজার টাকা জরিমানা নীতিমালা ভঙ্গের শাস্তি হিসেবে এমআরপি নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়।

জানা গেছে, কম্পিউটার এবং কম্পিউটার সংশ্লিষ্ট যন্ত্রাংশ বা পণ্য ব্যবসায় উৎপাদনকারী, অনুমোদিত আমদানীকারক এবং সরবরাহকারী, খুচরা বিক্রেতার স্বার্থ সংরক্ষণ, ব্যবসায়িক উন্নয়ন ও ক্রেতা সাধারণের স্বার্থরক্ষা এবং সন্তুষ্টির লক্ষ্যে এই নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে। নীতিমালাটিকে মোট ৫টি অধ্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। প্রথম অধ্যায়ে প্রারম্ভিক, দ্বিতীয় অধ্যায়ে রয়েছে বিষয়বস্তু, তৃতীয় অধ্যায়ে রয়েছে বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া, চতুর্থ অধ্যায়ে শাস্তি ও পঞ্চম অধ্যায়ে করা হয়েছে বিবিধ বিষয়ে বিস্তারিত বর্ণনা ।

সভায় জানানো হয়, প্রযুক্তি পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে সবক্ষেত্রে একই মূল্য রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে গ্রাহকদের প্রতারিত হওয়ার কোনো রকম সুযোগ থাকছে না। কোনো পণ্যের যদি একাধিক আমদানিকারক থাকে, সেক্ষেত্রে সব আমদানিকারকরা একসঙ্গে বসে একই মূল্য নির্ধারণ করবেন। প্রতিটি আমদানিকারক হতে পরিবেশকরা একই মূল্যে কম্পিউটার পণ্য কিনতে পারবেন।

জানা গেছে, এমআরপি নীতিমালা বাস্তবায়ন বা এই নীতিমালা মেনে চলার বিষয়ে ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যে কোনো জটিলতা সৃষ্টি হলে ও এই বিষয়ে উভয়পক্ষ সমিতি বরাবর লিখিতভাবে তাদের অভিযোগ উত্থাপন করলে সমিতি দু’পক্ষের মধ্যে সমঝোতার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের উদ্যোগও গ্রহণ করবে। তবে সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে প্রচলিত আইনকে প্রাধান্য দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, বিসিএস এর এই এমআরপি নীতিমালা বাস্তবায়ন করতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর পরিপূর্ণভাবে সহযোগিতা প্রদান করবে। কম্পিউটার ব্যবসায়ীরাও এই নীতি বাস্তবায়নের জন্য সহযোগিতা করবেন বলে সভায় আশ্বাস প্রদান করা হয়েছে।

Advertisements
Loading...