The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

১৫ বছর পর বড় পর্দায় দেখা যাবে অপি করিমকে

২০০৪ সালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর পরিচালনায় ‘ব্যাচেলর’ চলচ্চিত্র ছিল অপি করিমের প্রথম চলচ্চিত্র

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দীর্ঘ প্রায় ১৫ বছর পর চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী অপি করিম। দুই বাংলার যৌথ প্রযোজনায় নির্মাণাধীন ‘ডেব্রি অব ডিজায়ার’ ছবিতে দেখা যাবে অপি করিমকে।

১৫ বছর পর বড় পর্দায় দেখা যাবে অপি করিমকে 1

এই চলচ্চিত্রের শুটিং করতে তিনি বর্তমানে রয়েছেন কোলকাতায়। কথাসাহিত্যিক মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুই ছোটগল্প ‘বিষাক্ত প্রেম’ এবং ‘সুবালা’ অবলম্বনে সাজানো হয়েছে এর চিত্রনাট্য।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা গেছে, ছবিটিতে অপির চরিত্রের নাম হলো সোমা। সে কোলকাতার মেয়ে। সোমা বিবাহিতা। স্বামী ও একমাত্র সন্তানকে নিয়ে তার ঘর সংসার। কিন্তু স্বামী বেকার। সে কারণে সন্তানকে ইংলিশ মিডিয়ামে পড়াতে চাকরি করতে হচ্ছে সোমাকে। কোলকাতায় শেষ হলে এরপর ঢাকায় ছবিটির কিছু অংশের শুটিং হবে।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর পরিচালনায় ‘ব্যাচেলর’ চলচ্চিত্র ছিল অপি করিমের প্রথম চলচ্চিত্র। এরপর বড় পর্দায় পাওয়া যায়নি তাকে। ‘ডেব্রি অব ডিজায়ার’-এর মাধ্যমে আবারও চলচ্চিত্রে ফিরছেন তিনি।

এই চলচ্চিত্রটিতে অপির স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করছেন কোলকাতার একজন জনপ্রিয় অভিনেতা। তবে তার নাম ও অন্যান্য অভিনয়শিল্পীর তালিকা শীঘ্রই প্রকাশ হবে বলে প্রযোজক সংস্থা সূত্রে জানানো হয়েছে। যৌথ প্রযোজনার নতুন নীতিমালার আওতায় এই চলচ্চিত্রটিকে প্রথম অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

চলচ্চিত্র ‘ডেব্রি অব ডিজায়ার’ পরিচালনা করছেন কোলকাতার জনপ্রিয় নির্মাতা ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী। তার সঙ্গে মিলে এটি যৌথভাবে প্রযোজনা করছেন বাংলাদেশী নির্মাতা জসীম আহমেদ। প্রাথমিকভাবে এই চলচ্চিত্রটির বাংলা নাম রাখা হয়েছে ‘মায়ার জঞ্জাল’। তবে এটি পরবর্তীতে পরিবর্তন করা হবে।

মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছোট গল্পকে একফ্রেমে নিয়ে আসার বিষয়ে ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী এবং জসীম আহমেদ জানান, দুটি আলাদা আলাদা গল্প। তবে চিত্রনাট্য এমনভাবে সাজানো হয়েছে যে, শেষে গিয়ে দুটি গল্পই মিলে গেছে একই মোহনায়।

১৫ বছর পর বড় পর্দায় দেখা যাবে অপি করিমকে 2

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে ‘ফড়িং’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে পরিচালনায় আসেন ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী। তারপর ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ এবং ‘ভালোবাসার শহর’ ছবি দুটি পরিচালনা করেন তিনি। এই দুটিতেই ছিলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।

অপরদিকে জসীম আহমেদ ৩টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি পরিচালনা করে দেশ-বিদেশে ব্যাপক খ্যাতি পেয়েছেন। এগুলো হলো ‘দাগ’, ‘অ্যা পেয়ার অব স্যান্ডেল’ এবং ‘চকোলেট’। ‘ওয়ার্ল্ড হোম অব শর্টস মুভিজ’ খ্যাত শর্টস ইন্টারন্যাশনাল তার ৩টি চলচ্চিত্ররই বিশ্ব পরিবেশনার জন্য চুক্তি সম্পন্ন করেছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...