The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

হাজার কোটি টাকা মূল্যের স্মার্টফোন নিয়ে যতো কথা!

অ্যাপলের ‘আইফোন’ ব্যান্ড তৈরি করেছিলো ‘ফ্যালকোন সুপারনোভ আইফোন-৬ পিঙ্ক ডায়মন্ড’

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মোবাইলের যুগ আসার পর দিনকে দিন নতুন নতুন মোবাইল আসছে। তবে এবার যে মোবাইল ফোনের কথা উঠে এসেছে সেটি বিস্ময়কর দামের। হাজার কোটি টাকা মূল্যের স্মার্টফোন!

হাজার কোটি টাকা মূল্যের স্মার্টফোন নিয়ে যতো কথা! 1

বর্তমানে দামি মোবাইল ফোন ব্যবহারের বিষয়টি অনেকটা পাল্লা দেওয়ার মতো হয়ে গেছে। কে কতো বেশি দামের মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারে তা নিয়ে রীতিমতো প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। এবার এমনই এক দামি স্মার্টফোনের কথা শোনা গেলো। সেই স্মার্টফোনটির দাম নাকি হাজার কোটি টাকা! এও কী সম্ভব? শুনলে হয়তো অবাক মনে হতে পারে পারে কিন্তু ঘটনাটি সত্য। সত্যিই হাজার কোটি টাকা মূল্যের স্মার্টফোন!

আমরা আইফোন বা ভালো কোনো স্মার্টফোন পেলে খুশিই হয়ে যায়। তবে কিছু মানুষ তার খুশির জন্য হাজার কোটি টাকা দামের মোবাইল ফোনও ব্যবহার করেন।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, পৃথিবীর সবচেয়ে দামি স্মার্র্টফোনটি তৈরি করেছিল জনপ্রিয় ও দামি মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘অ্যাপল’। আজকের কথা নয় সেই ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বের সবচেয়ে দামি মোবাইল ফোনটি তৈরি করে হইচই ফেলে দিয়েছিলো।

অ্যাপলের ‘আইফোন’ ব্যান্ড তৈরি করেছিলো ‘ফ্যালকোন সুপারনোভ আইফোন-৬ পিঙ্ক ডায়মন্ড’। যার বাজারমূল্য ধরা হয়েছিল ১১০ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার! যার বর্তমান বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা।

তবে অ্যাপল পরবর্তীকালে এই ফোনের দাম কমিয়ে দেয়। পরে এই ফোন বিক্রি হতো ৪৮ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলারে বা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৫০০ কোটি টাকা। তবে প্রায় ১ বছর আগে থেকে এই ফোন তৈরি বন্ধ করে দিয়েছে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, এই ‘ফ্যালকোন সুপারনোভ আইফোন-৬ পিঙ্ক ডায়মন্ড’ ফোনটি তৈরি করা হয়েছিল মাত্র ২০০টি সেট। এই ফোনটি যারা কিনতে আগ্রহী তারা তাদেরকে আগে থেকেই অ্যাপলকে অর্ডার দিতে হতো। অর্ডার মতো ফোনটি তৈরি হতো অ্যাপলের কারখানাটিতে।

বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ২৪ ক্যারেটের স্বর্ণ। গোলাপি স্বর্ণ দিয়ে সাজানো হয়েছে এই ফোনটি। ফোনটির বডিতে আবার ব্যবহার করা হয়েছে প্লাটিনাম।

জানা যায়, ভারতের সবচেয়ে ধনী শিল্পপতি মুকেশ আম্বানির স্ত্রী নিতা আম্বানি এই ফোনটি ব্যবহার করেন বলে গণমাধ্যমে অনেক আগেই খবর প্রকাশ করা হয়। তবে বিষয়টি নাকি গুজব।

মুকেশ আম্বানি, নিতা আম্বানি বা তার পরিবারের কেওই এমন ফোন ব্যবহার করেন না বলে তার পরিবারের পক্ষ হতে করা হয়েছিল।

Loading...