The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কণ্ঠশিল্পী আসিফ পুত্রের নতুন এক উদ্যোগ

ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে সারা বিশ্বে থাকা বাংলা ভাষাভাষীদের মধ্যে বাংলা সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেওয়া ও বিনোদনের জন্য যাত্রা শুরু করলো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘ফেদারমেন ডিজিটাল’

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে সারা বিশ্বে থাকা বাংলা ভাষাভাষীদের মধ্যে বাংলা সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেওয়া ও বিনোদনের জন্য যাত্রা শুরু করলো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘ফেদারমেন ডিজিটাল’। আর এই প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরের ছোট ছেলে শাফায়াত আসিফ রুদ্র।

কণ্ঠশিল্পী আসিফ পুত্রের নতুন এক উদ্যোগ 1

ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে সারা বিশ্বে থাকা বাংলা ভাষাভাষীদের মধ্যে বাংলা সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেওয়া ও বিনোদনের জন্য যাত্রা শুরু করলো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘ফেদারমেন ডিজিটাল’। আর এই প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরের ছোট ছেলে শাফায়াত আসিফ রুদ্র।

প্রথম অবস্থাতে এই প্রতিষ্ঠানটি আসিফ আকবরের গানগুলো নিয়েই কাজ করবে। পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন শিল্পীদের সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যেতে চায় ‘ফেদারমেন ডিজিটাল’ নামক ওই সংস্থাটি। প্রতিষ্ঠানটির মূল লক্ষ্য হলো শিল্পী, সুরকার ও গীতিকারদের প্রাপ্য রিয়্যালিটি নিশ্চিত করা। প্রতিষ্ঠানটি বাংলা সংস্কৃতির উন্নয়ন এবং প্রসারে কাজ করবে । সেই লক্ষ্যেই ফেসবুক, ইউটিউব, ভিবো, ডেইলি মোশনসহ আন্তর্জাতিক সব পোর্টালের সঙ্গে যুক্ত হয়ে কাজ করবে ‘ফেদারমেন ডিজিটাল’। মোবাইল অপারেটরের মাধ্যমেও থাকবে তাদের এই সেবা।

এই প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার শাফায়াত আসিফ রুদ্র বলেছেন, মূলত এটি একটি ওপেন প্ল্যাটফর্ম। আমরা বাংলা সংস্কৃতিকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে বদ্ধ পরিকর। বর্তমান প্রজন্ম ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে এই প্ল্যাটফর্মটি একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে বলে আমার বিশ্বাস। সংশ্লিষ্ট সকলের আর্থিক বিষয়টিও নিশ্চিত করতে চাই আমরা। সকলের সহযোগিতা পেলে এটি বাস্তবায়ন করা সম্ভব।

এই বিষয়ে আসিফ আকবর বলেছেন, আমার ছোট ছেলে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম নিয়ে কাজ করছে এটি অবশ্যই একটি ভালো খবর। আমি ও আমার প্রতিষ্ঠান ‘আর্ব এন্টারটেইনমেন্ট’ সব সময় ফেদারমেন ডিজিটালের সঙ্গে আছি। আমি ওদের সঙ্গেও কথা বলেছি। ওদের যে পরিকল্পনা, তা আমার খুবই ভালো লেগেছে। এই পরিকল্পনায় দেশে ও কোন দুস্থ শিল্পী, সুরকার ও গীতিকার থাকবে না। অসুস্থ হলে তহবিল করে সাহায্য প্রার্থনাও আর করতে হবে না। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন খুব কঠিন কোনো বিষয় না। ফেদারমেন ডিজিটালের জন্য আমার শুভ কামনা রইলো। আমরাও মনে করি এমন একটি প্রতিষ্ঠান হয়তো এদেশের অবহেলিত শিল্পীদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের সুখ- দু:খের সঙ্গি হবে। তাই সকলের প্রত্যাশা ‘ফেদারমেন ডিজিটাল’ এর এই উদ্যোগ সফল হোক।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...