The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

রাসবেরি পাই ৪ কম্পিউটারে যা যা থাকছে

নতুন রাসবেরি পাই ৪ মডেলটি ডিজাইনের দিক থেকে পূর্বের ফ্ল্যাগশিপ মডেল অনেকটা রাসবেরি পাই ৩ মডেল বি প্লাস-এর মতোই

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শিক্ষার্থীদের নিকট বেশ জনপ্রিয় সস্তা দামের ক্ষুদ্র কম্পিউটার ‘রাসবেরি পাই’। এই কম্পিউটারের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রাসবেরি ফাউন্ডেশন এবার জনপ্রিয় এই সিঙ্গেল বোর্ড কম্পিউটারটির নতুন মডেল ‘রাসবেরি পাই ৪’ উন্মোচন করলো। কী থাকছে এতে?

রাসবেরি পাই ৪ কম্পিউটারে যা যা থাকছে 1

নতুন রাসবেরি পাই ৪ মডেলটি ডিজাইনের দিক থেকে পূর্বের ফ্ল্যাগশিপ মডেল অনেকটা রাসবেরি পাই ৩ মডেল বি প্লাস-এর মতোই। তবে ফিচারে ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে আসা হয়েছে। মূলত যার শুরুটা হয়েছে দ্রুতগতির প্রসেসর দিয়ে। এর প্রসেসর কোরটেক্স-৭২ অর্থাৎ ১.৫ গিগাহার্জ গতির কোয়াড কোর ৬৪ বিট। রাসবেরির আগের ভার্সনগুলো ৫১২ মেগাবাইট র‌্যাম অথবা ১ গিগাবাইট র‌্যামের হয়ে থাকলেও এই প্রথমবারের মতো আপনি চাইলেই আরও বেশি র‌্যামের ভার্সন ব্যবহার করতে পারবেন। রাসবেরি পাই ৪ কম্পিউটারের প্রাথমিক মডেলটি হলো ১ গিগাবাইট র‌্যামের। সেইসঙ্গে বিকল্প হিসেবে ২ গিগাবাইট র‌্যাম এমনকি ৪ গিগাবাইট র‌্যাম সমৃদ্ধ মডেলও পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে র‌্যামের ডাটা ট্রান্সফার রেটও হবে অত্যান্ত দ্রুতগতির- এলপিডিডিআর২ হতে এলপিডিডিআর৪।

জানা গেছে, কানেক্টিভিটির ক্ষেত্রেও নতুন এই কম্পিউটারটিতে বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হয়েছে। রাসবেরি পাই ৪-এ মিলবে প্রকৃত গিগাবিট ইথারনেট (আগের মতো ইউএসবি ২.০ ভিত্তিক ইথারনেট নয়)। এছাড়াও এতে ২টি ইউএসবি ৩.০ পোর্ট ও ২টি ইউএসবি ২.০ পোর্ট থাকছে। ব্যবহার করা যাবে ইউএসবি সি পোর্টও। ব্লুটুথ প্রযুক্তিও আপডেট করা হয়েছে এতে। ব্লুটুথ ৪.২ এর পরিবর্তে রাসবেরি পাই ৪ কম্পিউটারে রয়েছে ব্লুটুথ ৫.০।

নতুন এই কম্পিউটারটির আরেকটি উল্লেখযোগ্য পরবর্তন হলো, বড় আকৃতির এইচডিএমআই পোর্ট এবার বাতিল করা হয়েছে। এর পরিবর্তে এতে থাকছে ক্ষুদ্র আকৃতির ২টি মাইক্রো এইচডিএমআই পোর্ট। যে কারণে একটি রাসবেরি কম্পিউটারেই এবার দুটি ফোরকে ডিসপ্লে এটিতে যুক্ত করা যাবে। প্রজেক্টর সংযোগের জন্য আরও থাকছে ৪০ পিনের জিপিআইও।

আজ সোমবার রাসবেরি ফাউন্ডেশন তাদের নতুন রাসবেরি ৪ কম্পিউটার উন্মোচন করেছে। ১ জিবি র‌্যামের মডেলটির মূল্য ৩৫ ডলার, ২ জিবি র‌্যামের মডেলটির মূল্য ৪৫ ডলার এবং ৪ জিবি র‌্যামের মডেলটির মূল্য ৫৫ ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে।

রাসবেরি পাই হলো বিকল্প কম্পিউটার হিসেবে বিশ্বজুড়ে একটি আলোচিত নাম। ক্রেডিট কার্ড আকৃতির একটি বোর্ডের মধ্যে কম্পিউটারের আস্ত একটি সিপিইউ বসিয়ে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে রাসবেরি ফাউন্ডেশন। মূলত রাসবেরি পাই-এর যাত্রা শুরু হয় শিশু-কিশোরদের প্রোগ্রামিং শেখার কম্পিউটার হিসেবে। তবে বর্তমানে শুধু প্রোগ্রামিং নয়, রোবট তৈরি সহ বিভিন্ন ধরনের প্রজেক্টে ব্যবহার হচ্ছে এই ক্ষুদ্র কম্পিউটারটি। হোম থিয়েটার পিসি হিসেবে, লো পাওয়ার ডেস্কটপ কম্পিউটার হিসেবে ও ছাত্রদের থেকে শুরু করে ব্যবসার বিভিন্ন কাজে এর ব্যাপক ব্যবহার বিদ্যমান। আকারে ছোট হওয়ায় সহজেই পকেটে করে কম্পিউটারটি যেখানে খুশি সেখানে বহন করা সম্ভব হয়।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...