The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ঘোল দই এর থেকেও বেশি উপকারি

ঘোল আমরা অনেকেই পান করে থাকি তবে এই ঘোল ও দই এই দুইয়ের মাঝে তফাৎ কি অথবা কোনটি বেশি উপকারী তা নিয়ে বিরম্বনায় থাকেন অনেকেই

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ঘোল নাকি দই এই বিষয়টি নিয়ে বাছাবাছিতে সংকটে থাকেন আমাদের মধ্যে অনেকেই। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, ঘোল দই এর থেকেও বেশি উপকারি।

ঘোল দই এর থেকেও বেশি উপকারি 1

দই আমাদের সকলেরই অতি পরিচিত একটি খাবার এবং পাশাপাশি ঘোল আমরা অনেকেই পান করে থাকি তবে এই দুইয়ের মাঝে তফাৎ কি অথবা কোনটি বেশি উপকারী তা নিয়ে বিরম্বনায় থাকেন অনেকেই। সেই বিরম্বনা কে দূর করার জন্য আজকে আমাদের এই আলোচনা। দইকে পাতলা করে ঘোল বানানো হয়ে থাকে তাই ঘোল অতীব সহজেই এবং দই এর তুলনায় কম সময় নিয়ে শরীরে হজম হয়। ঘোল খুব দ্রুত শরীরে মিশে যায় এবং পাকস্থলীকে শীতল করে তাই অনেকেই দইয়ের তুলনায় ঘোলকেই বেছে নেয়। ঘোল আমাদের শরীরকে খুব দ্রুত হাইড্রেট করে ফেলে কারণ ঘোলের মধ্যে জলীয় উপাদান দইয়ের তুলনায় অনেক বেশি থাকে। এসকল জলিয় উপাদানসমূহ দইয়ের মাঝে পাওয়া যায় না তাই হাইড্রেশন এর ক্ষেত্রে ঘোল খুবি দ্রুত কাজ করে আমাদের শরীরে বা মানবদেহে।

দই থেকে ঘোল তৈরি হয়ে থাকে যা আমরা সবাই জানি সে ক্ষেত্রে আমরা বিবেচনা করে থাকি যে দই বেশি উপকারী যা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। দই ও ঘোল দুটিই মানব শরীরের জন্য উপকারী তবে দুই এর তুলনায় এক গ্লাস জল আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশি কার্যকর ও উপকার। আমরা আমাদের খাবারে প্রচুর পরিমাণে মসলা ও তেল গ্রহণ করে থাকে যার ফলে আমাদের শারীরিক অসুস্থতার ঝুঁকি বাড়তে পারে সে ক্ষেত্রে এক গ্লাস জল আমাদের পাকস্থলীকে খুব সহজে ও দ্রুততার সাথে আরাম যোগ দিতে পারে। ভুল মসলাদার ও তেলজাতীয় খাবার হজম করার ক্ষেত্রে কার্যকরী ভুমিকা পালন করে থাকে। যাদের শরীরে অতীব পরিমাণে ফ্যাট অথবা মেঘ জমে থাকে সে ক্ষেত্রে ভুল খুবই কার্যকর একটি খাদ্য। ঘুম আমাদের শরীরে অতিরিক্ত চর্বি অথবা ফ্যাট কে বলে ফেলতে সাহায্য করে যার ফলে অনেকেই স্বাস্থ্য চর্চার ক্ষেত্র ভয় পান করে থাকেন।

আমাদের মাঝে এমন অনেকেই রয়েছেন যারা দুধ পান করতে পারেননা বা দুধ পান করার ক্ষেত্রে নানাবিধ সমস্যায় ভোগেন এ সকল মানুষদের ক্ষেত্রে ঘোল একটি বিকল্প ব্যবস্থা হতে পারে। এর পাশাপাশি যারা ল্যাকটোজ ইনটলারেন্স তারাও খুব সহজেই ক্যালসিয়ামের ঘাটতি মিটানোর জন্য নিয়মিত ঘোল পান করতে পারেন এতে করে তাদের শারীরিক ক্যালসিয়ামের যোগান মিলবে এবং পাশাপাশি শারীরিক ক্লান্তি দূর হয়ে যাবে। ঘোলের নানারকম উপকারিতার পাশাপাশি এর মধ্যে ভিটামিন থাকে যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। ঘোলে থাকা ভিটামিন আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে এবং পাকস্থলীর আরামের জন্য খুবই চমৎকার ভাবে ভূমিকা রাখে ঘোল। ঘোলের একটি চমৎকার গুণ হলো যাদের হাই ব্লাড প্রেসার আছে তারা নিয়মিত শারীরিক প্রশান্তির জন্য ঘোল পান করতে পারেন। হাই ব্লাড প্রেসার রোগীরা নিয়মিত ঘোল পান করার ফলে অনেকেই উপকৃত হতে পেরেছেন।

দই থেকে ঘোলের স্বাদ একটু আলাদা হয়ে থাকে যার ফলে অনেকেই ঘোলকে পান করতে চান না তবে এই ঘোলে রয়েছে অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিক্যানসার নামক সব প্রয়োজনীয় উপাদান সমূহ যার ফলে নিয়মিত ঘোল পান করলে আমাদের শরীরে রোগ বাসা বাঁধতে পারে না। ঘোলের মধ্যে থাকা সকল উপাদান সমূহ শরীরের রোগ সৃষ্টিকারী জীবাণুদের ধ্বংস করতে কার্যকারী ভূমিকা পালন করে থাকে।

আমাদের মাঝে যাদেরে ডায়েট ফ্ল‌ুইড রেস্ট্রিকশন রয়েছে তাদের জন্য ঘোল থেকে বেশি কার্যকর হল দই। তারা ঘোল পান করা থেকে বিরত থাকুন পাশাপাশি আমাদের মাঝে পুষ্টিহীনতায় ভুগছেন তারাও ঘোল পরিত্যগ করে দই খেতে পারেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...