এবার মানুষের ভবিষ্যৎ জানার সফটওয়্যার আবিষ্কার করলেন বিজ্ঞানীরা

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ আপনি কি জানেন আজ থেকে ১ বছর পর আপনি কোথায় কি অবস্থায় থাকবেন? এবার বিজ্ঞানীরা এমন একটি সফটওয়্যারে আবিষ্কার করলেন যা কিনা আপনাকে ভবিষ্যতে আপনি কোথায় থাকবেন তা বলে দিতে পারবে। সফটওয়্যারটির নাম “ফার আউট”। জানতে হলে বিস্তারিত পড়ুন…


time_travel_main_article_1_1374217599_540x540

এবার মানুষ জানতে পারবে ভবিষ্যতে একটি সময়ে তিনি কোথায় কি অবস্থায় থাকবেন! এ বিষয়ক সফটওয়্যারটি আবিষ্কার করেন গুগোল ও মাইক্রোসফটের কয়েকজন গবেষক। এ সফটওয়্যারটির নাম দেয়া হয়েছে “ফার আউট” । এ প্রোগ্রামটি GPS ব্যবহার করবে এবং একজন মানুষের দৈনিক রুটিন অনুসরণ করবে। একজন মানুষকে সফটওয়্যারেটি জানিয়ে দিবে তিনি ভবিষ্যতে কি অবস্থাতে কোথায় থাকবেন, এমনকি তিনি তার চাকরী ছেড়ে দিয়ে নতুন চাকরী নিবেন কিনা তাও জানিয়ে দিবে। এ ছাড়া তার জীবনে ভবিষ্যতে ঘটবে এমন আরও অনেক কিছুই হিসেব করে বলে দিতে পারবে এই সফটওয়্যারেটি।

সফটওয়্যারটি তৈরিতে বিশেষ অবদান রেখেছেন এমন দুইজন বিশেষজ্ঞ এডাম সাদিলেক ও জন কূর্ম জানান তারা মানুষের চলাফেরার বিষয়ে বিশেষ গবেষণা করেন। তারই প্রেক্ষিতে তাঁদের মাথায় নতুন এ ডিভাইস তৈরির পরিকল্পনা আসে।

গবেষক দল ৭০৩ জন ভলান্টিয়ার মানুষকে GPS ডিভাইসটি দেন এবং তাঁদের বলে দেন তারা যেখানে যেখানে যাবেন এই ডিভাইস সাথে রাখতে। গবেষক দল এসব ভলান্টিয়ারের প্রত্যেকের বাস, কার, এবং অন্যান্য যোগাযোগের মাধ্যমেও GPS ডিভাইস সংযুক্ত করে দেন।

article-2366566-1AD9A42E000005DC-244_634x359
চিত্রে ফার আউট ম্যাপিং সফটওয়্যারের একটি স্ক্রিন সট

এডাম সাদিলেক ও জন কূর্ম ১৫০ মিলিয়ন জায়গার রেকর্ড করেন ভলান্টিয়ারদের সাথে সরবরাহকৃত GPS ডিভাইস থেকে। তারা এসব ডাটা তাঁদের ফার আউট কম্পিউটার প্রোগ্রামে প্রবেশ করান এবং মানুষের চলাফেরার বিষয়ে জটিল হিসেব করেন।

ফার আউট নিজে থেকে বলে দিতে পারে কে কখন কি করবে এবং কেউ আগামী দিনে তার রুটিন ভঙ্গ করে অন্য কোন কাজ করবে কিনা! গবেষকরা বলেন মানুষের জীবনের ভবিষ্যৎ অনেক ঘটনাই এর মাধ্যমে জানা যাবে। এসবের মধ্যে ৭০ থেকে ৯০ শতাংশ তথ্যই নির্ভুল হবে।

একজন মানুষ তার দীর্ঘ জীবনে একই কাজ বার বার করে, বেতিক্রম ঘটে সামান্য কিছু সংখ্যক সময়ে। ফার আউট মানুষের আচরন ও দৈনন্দিন রুটিন পর্যালোচনা করে বলে দিতে পারে ঐ মানুষটি আগামীতে কি করতে যাচ্ছে বা করবে।

গবেষকরা আশা করছেন এই সফটওয়্যারটি Foursquare এর মত সামাজিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে ব্যাবহার করা হবে। তারা জানান এই সফটওয়্যার ভবিষ্যতের জনসংখ্যা কত হবে, ভবিষ্যতে কি কি রোগ মানব শরীরে মহামারী আকারে দেখা দিবে এবং ট্র্যাফিক সমস্যার ক্ষেত্রেও সাবধান করে দিবে। এর ফলে সহজেই আগে থেকেই আসন্ন কোন ঘটনার ব্যাপারে মানুষকে সতর্ক করে দেয়া যাবে। ফলে জনগন নিজেও ও আশেপাশের ভবিষ্যৎ বিপদের বিষয়ে আগাম ধারণা করতে পারবে বলে গবেষকরা আশা করছেন।

আমাদের সমস্যাগুলো বিচিত্রমুখী, বৈচিত্র্যপূর্ণ ও ভিন্ন, নতুন আবিষ্কৃত এ সফটওয়্যার দিয়ে যদি ভবিষ্যৎ ঠিক জানা যায় তবে হয়ত আমরা আমাদের বাস্তব জীবনের অনেক সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে পারব।

সূত্রঃ ডেলি মেইল।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...