The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বৃষ্টির মতো ঝরে পড়ছে লোহা!

পৃথিবী হতে ৬৪০ আলোকবর্ষ দূরে খোঁজ পাওয়া গেলো এই নতুন গ্রহটির

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মহাকাশ গবেষণায় নতুন মোড় নিয়েছে। আমাদের সৌরজগতের বাইরে অনন্ত মহাকাশের কোনও এক প্রান্তে এক গ্রহ এবার চোখে পড়েছে বিজ্ঞানীদের। এই গ্রহে বৃষ্টির মতোই ঝরে পড়ে লোহা!

বৃষ্টির মতো ঝরে পড়ছে লোহা! 1

সেই গ্রহকে জানতে গিয়ে অবাক হলেন বিজ্ঞানীরা। পৃথিবী হতে ৬৪০ আলোকবর্ষ দূরে খোঁজ পাওয়া গেলো এই নতুন গ্রহটির। এই গ্রহে বৃষ্টির মতো ঝরে পড়ছে লোহা!

নেচার পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে ওই গবেষণাপত্রটি। সুইজারল্যান্ডের জেনেভা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানিয়েছেন যে, এই নতুন গ্রহের নাম দেওয়া হলো ডবলুএএসপি-৭৬বি।

গ্রহটির তাপমাত্রা প্রচণ্ড রকম বেশি। সেখানে দিনের বেলা তাপমাত্রা থাকে ২ হাজার ৪০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসেরও বেশি। এই তাপমাত্রায় লোহাসহ যাবতীয় ধাতু গলে গিয়ে শেষ পর্যন্ত বাষ্পে পরিণত হয়। তবে বাতাসের দাপটে বাষ্পে পরিণত হওয়া ধাতু একেবারে উড়ে যায়। যে কারণে রাতের তাপমাত্রা অনেকটাই কমে যায় এখানে।

গ্রহটির বিষয়ে জেনিভা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডেভিড আরেনরাইখ জানিয়েছেন যে, এই গ্রহে বিকালের দিকে বৃষ্টি হয়। তবে সেখানে লোহা-বৃষ্টি হয়। যে নক্ষত্রের আলোয় গ্রহটি আলোকিত হয়, সেই নক্ষত্রের দিকেই গ্রহটির একটি দিকই সবসময় থাকে। অপর দিকটি সব সময়ই অন্ধকার হয়ে থাকে।

নক্ষত্রটিকে প্রদক্ষিণ করতে ৪৩ ঘণ্টা সময় নেয় এই গ্রহটি। সূর্য হতে পৃথিবীতে যে তেজষ্ক্রিয় বিকিরণ আসে, নক্ষত্রটি থেকে ডবলুএএসপি-৭৬বি-তে তার হাজারগুণেরও বেশি বিকিরণ হয়।

নক্ষত্রের দিকে থাকা অংশটি এতো গরম হয়ে যায় যে বাষ্প অনুতে পরিণত হয়। দিন এবং রাতের তাপমাত্রার বিরাট ফারাকের কারণে প্রচণ্ড বাতাস বইতে থাকে। সেই বাতাসের দাপটে উষ্ণ অংশ হতে বাষ্পে পরিণত হওয়া লোহা শীতল অংশে উড়ে যায়। শীতল অংশের তাপমাত্রা থাকে এক হাজার ৫০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো।

Loading...