The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

৫০০ পরিবারের জন্য খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলে চিত্রনায়িকা বর্ষা

চিত্রনায়িকা বর্ষা সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুরের মেয়ে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ নিজ গ্রামের বাড়িতে গিয়ে ৫০০ পরিবারের জন্য খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলে চিত্রনায়িকা বর্ষা। সেই সঙ্গে তিনি করোনার কারণে এই দুর্দিনে বিত্তবানদের এগিয়ে আসারও আহ্বান জানিয়েছেন।

৫০০ পরিবারের জন্য খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলে চিত্রনায়িকা বর্ষা 1

চিত্রনায়িকা বর্ষা সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুরের মেয়ে। তিনি প্রযোজক অভিনেতা ও ব্যবসায়ী অনন্ত জলিলের সহধর্মিণী। তার স্বামীকে অসচ্ছল মানুষের পাশে দাঁড়াতে দেখা গেছে সব সময়। এবার মহামারি করোনার এই দুর্দিনে চিত্রনায়িকা বর্ষা ছুটে গেলেন নিজ এলাকাতে। নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী নিয়ে দাঁড়ালেন প্রায় ৫০০ পরিবারের পাশে।

গত রবিবার স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের সহায়তায় নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে বর্ষা নিজে উপস্থিত হতে তার এলাকায় অসচ্ছল মানুষদের নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য এবং নগদ অর্থ প্রদান করেন।

তবে বর্ষা শুধু যে করোনা ভাইরাসের জন্য মানুষের পাশে থাকছেন তা কিন্তু নয়; জানালেন তিনি সেচ্ছায় প্রায়শই তার গ্রাম ও আশেপাশের মানুষদের সাহায্য করে থাকেন।

এই বিষয়ে বর্ষা বলেন, করোনার ওসিলায় এবার আসা অলমোস্ট ৫০০ পরিবারকে যতোটুক আমার সামর্থ্য ছিল আমি দিয়েছি। সচরাচর দেখা যায় যে মানুষকে কিছু দিতে গেলে একজনের উপর আরেকজন পড়ে যাচ্ছে মারামারিও করছে, একটা প্যাকেট-এর জন্য, খাবারের জন্য গণ্ডগোল করছে তবে এবার এখানে খুব সুন্দর ব্যবস্থা ছিল।

৫০০ পরিবারের জন্য খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলে চিত্রনায়িকা বর্ষা 2

বর্ষা সে জন্য তার চাচা ও শাহজাদপুর থানার সকল পুলিশ সদস্যের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, সবাই ভালো থাকবেন ও অনুগ্রহ করে যার যতোটুকু সামর্থ্য অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ান। অ্যামাউন্ট ডাজ নট মেটার, মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এখুনি সময়। তথ্যসূত্র: চ্যানেল আই অনলাইন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...