The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

নোকিয়া এমন এক স্মার্টফোন আনছে যা বিশ্ব কাঁপাবে!

প্রতিষ্ঠানটি নতুন এই স্মার্টফোন দিয়ে হারানো বাজার ফিরে পেতে চাইছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ফিচার ফোনের বাজারে একচ্ছত্র আধিপত্য ছিলো নোকিয়ার। সেই সময়টি যদিও এখন অতীত। তবে এবার নোকিয়া এমন এক স্মার্টফোন আনছে যা বিশ্ব কাঁপাবে!

নোকিয়া এমন এক স্মার্টফোন আনছে যা বিশ্ব কাঁপাবে! 1

প্রতিষ্ঠানটি নতুন এই স্মার্টফোন দিয়ে হারানো বাজার ফিরে পেতে চাইছে। তাইতো নিত্য নতুন ডিজাইন নিয়ে কাজ করছেন তারা। এমনই একটি ফোনের কনসেপ্ট প্রকাশ করেছে ফিনল্যান্ডের এই প্রতিষ্ঠানটি। এর মডেল নোকিয়া এজ ম্যাক্স ২০২০। এই স্মার্টফোনটি বাজারে আসলে অন্যসব ফোনকে পেছনে ফেলে গ্রাহকদের মন জয় করবে বলে নোকিয়া আশা করছে।

ভিয়েতনামের এক ব্লগ পোস্ট এইচএমডি গ্লোবালের সূত্র উল্লেখ করে জানিয়েছে যে, নোকিয়া এজ ম্যাক্সে স্মার্টফোনে থাকছে ১০ জিবি র‌্যাম, ৬৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ও ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

এই স্মার্টফোনটিতে আরও থাকছে ৬.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে। সুপার অ্যামোলিড ডিসপ্লেতে ফোরকে রেজুলেশনও পাওয়া যাবে।

নোকিয়ার অন্যসব ফ্লাগশিপ ফোনের মতোই এই স্মার্টফোনে আরও থাকছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস চিপসেট।

জানা গেছে, এই ফোনটি ৩টি র‌্যাম ভার্সনে পাওয়া যাবে। এগুলো হচ্ছে ৬, ৮ ও ১০ জিবি র‌্যাম ভার্সন। এর সঙ্গে আরও থাকছে ১২৮, ২৫৬ এবং ৫১২ জিবি র‌্যাম। এর মেমোরি ১ টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়িয়ে নেওয়া যাবে। স্মার্টফোনটি অ্যানড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে চলবে।

ছবির জন্য এতে থাকছে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা। এতে আরও থাকছে ৬৪, ১৬ এবং ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সেলফির জন্য থাকছে ২০ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট শুটারও! ব্যাকআপের জন্য এই স্মার্টফোনটিতে ৬৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারি থাকবে। এতেকরে ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজিও সংযোজিত থাকবে ।

এই স্মার্টফোনটিতে ফাইভ জি কানেন্টিভিটি থাকার কথা রয়েছে। ৫৮০ ডলারে নোকিয়ার এই স্মার্টফোনটি কেনা যাবে। এই বছরের শেষ নাগাদ নতুন এই স্মার্টফোনটি বাজারে আসার সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...