The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

চীনে আবারও নতুন ভাইরাসের সন্ধান!

নতুন এই ভাইরাসটি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন চীনের বিজ্ঞানীরা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারীর দাপট শেষ না হতেই আরেকটি নতুন ভাইরাসের দেখে পাওয়া গেলো চীনে।

চীনে আবারও নতুন ভাইরাসের সন্ধান! 1

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, নতুন ওই ভাইরাস থেকেও মহামারীর সম্ভাবনা রয়েছে। নতুন এই ভাইরাসটি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন চীনের বিজ্ঞানীরা। এমন খবর প্রকাশ করেছে বিবিসি।

নতুন এই ফ্লু ভাইরাসটি শূকরের মধ্যে পাওয়া যায়। যা মানুষের মধ্যেও সংক্রামিত হতে পারে। তাছাড়াও মানবদেহ হতে মানবদেহে সংক্রমণ ঘটাতে পারে বলেও জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, নতুন এই ভাইরাসটির আরও রূপান্তরও ঘটতে পারে। এটি সহজেই ব্যক্তি হতে ব্যক্তিতে ছড়িয়ে বিশ্বব্যাপী আবারও প্রকোপ আকার ধারণ করতে পারে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্ট গবেষকরা।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে, যদিও এটি কোনো তাৎক্ষণিক সমস্যা নয়। তবে এটি মানবদেহে সংক্রমিত হওয়ার ‘সব রকম সম্ভাবনা’ রয়েছে। তাই এই বিষয়ে নিবিড় পর্যবেক্ষণ অত্যন্ত জরুরি। নতুন ধরনের এই ভাইরাস মোকাবিলায় মানুষের শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা খুব কম। এমনকি প্রতিরোধ ক্ষমতা নাও থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন বিজ্ঞানীরা।

ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস জার্নালে এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদনও প্রকাশ করা হয়। সেখানে গবেষকরা লিখেছেন যে, এই ভাইরাসটি শুয়োরের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখার ব্যবস্থা করা ও এটি নিয়ন্ত্রণের সোয়াইন শিল্পে কর্মরত কর্মীদের নিবিড় পর্যবেক্ষণের ব্যবস্থা দ্রুত বাস্তবায়ন করা জরুরি।

করোনা মহামারীকে প্রতিরোধ করতে পুরোবিশ্ব যখন ব্যস্ত, তখন বিশেষজ্ঞরা ইনফ্লুয়েঞ্জার নতুন এই স্ট্রেনের কারণে রোগের হুমকির বিষয়টি গুরুত্বসহকারে নজরদারি করছেন।

ইতিপূর্বে ২০০৯ সালের শুরুতে মেক্সিকোতে সোয়াইন ফ্লু প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। তবে প্রাথমিকভাবে সেটি বিজ্ঞানীদের ভাবনার চেয়ে কমই মারাত্মক ছিলো।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...