The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কাতার উঠে এসেছে সবচেয়ে কম অপরাধপ্রবণ দেশের তালিকায় শীর্ষে

বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ দেশের খেতাবটি অর্জন করলো কাতার

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সম্প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও শহরের অপরাধ পরিক্রমা পর্যালোচনা করে একটি তালিকা তৈরি করেছে। সেই তালিকায় সবচেয়ে কম অপরাধ সংঘটিত হওয়ায় প্রথম স্থানে দখল করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার।

কাতার উঠে এসেছে সবচেয়ে কম অপরাধপ্রবণ দেশের তালিকায় শীর্ষে 1

যে কারণে বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ দেশের খেতাবটি অর্জন করলো কাতার। সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং মিশরের অবরোধের পরও ক্রমেই উন্নতির দিকেই ধাবিত হচ্ছে কাতার।

আবারও বিশ্বের সবচেয়ে কম অপরাধপ্রবণ দেশের তালিকার শীর্ষে উঠে এলো মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশ কাতারের নাম। ১৩৩ দেশ ও শহরের অপরাধ পরিক্রমা পর্যালোচনা করে একটি তালিকা করে নামবেও ক্রাইম ইনডেক্স। সেখানে ১০০ পয়েন্টের মধ্যে ৮৮.১০ পয়েন্ট পেয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে কাতার। সবচেয়ে নিরাপদ দেশের খেতাব অর্জন করায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন সেখানে বসবাসরত প্রবাসীরাও।

এদিকে কাতারে প্রবাসীদের সেখানকার আইন কানুন মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন শ্রম কাউন্সিলর। ২০১৫ সাল হতে ২০১৯ সাল পর্যন্ত আরব অঞ্চলের সবচেয়ে নিরাপদ দেশ হিসেবে নির্বাচিত হয়ে আসছে কাতার। শুধু আইন কানুনই নয়, অন্যান্য বৈশ্বিক র‍্যাংকিংয়েও কাতারের উন্নয়ন চোখে পড়ার মতোই।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...