The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মাথায় সিং ও শরীরে ৪৫৩টি ছিদ্র করে গিনেস রেকর্ড করলেন!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মানুষের কতো রকম ইচ্ছা থাকে। এক ব্যক্তি গিনেস বুক রেকর্ডে তার নাম লেখাতে এক অভিনব পন্থা অবলম্বন করেছেন। তিনি মাথায় সিং ও শরীরে ৪৫৩টি ছিদ্র করে গিনেস রেকর্ড করলেন!

মাথায় সিং ও শরীরে ৪৫৩টি ছিদ্র করে গিনেস রেকর্ড করলেন! 1

জার্মানির ওই ব্যক্তি সর্বাধিকবার দেহ পরিবর্তন করে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন। রেকর্ড করা ওই ব্যক্তির নাম রলফ বুখহলজের। ৫১ এর বেশিবার দেহ পরিবর্তনও করেছেন তিনি!

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস অনুসারে জানা যায়, রলফ জার্মানিতে একটি টেলিকম সংস্থায় তথ্য প্রযুক্তির উপর কাজ করেন। ৪০ বছর বয়সে তিনি নিজের প্রথম ট্যাটু ও ছিদ্র দিয়ে দেহ পরিবর্তনের যাত্রা শুরু করেছিলেন। তারপর প্রায় ২০ বছরের বেশি সময় ধরে, কণ্ঠস্বর, ঠোঁট, ভ্রু, নাক ও কপালে দুটি ছোট শিং সহ আরও নানা কাজ করেছেন তার নিজের শরীরে।

দেহ পরিবর্তনগুলো কেবল বাহিরের অংশেই পরিবর্তিত হয়েছে। এই বিষয়ে রলফ বলেছেন, এটি প্রকৃতপক্ষে আমাকে বদলায়নি। আমি একই ব্যক্তি রয়ে গেছি। রলফের পরিবর্তনের মধ্যে রয়েছে তার শরীরের ৪৫৩টি ছিদ্র।

জানা গেছে, ২০১০ সালে তিনি গিনেসের দ্বারা সর্বাধিক সংখ্যক দেহ ছিদ্র করা ব্যক্তি হিসাবে স্বীকৃতি লাভ করেন। ২০১৪ সালে দুবাই বিমানবন্দর হতে হোটেলে যাওয়ার পথে তিনি জনসাধারণের নজরে এসেছিলেন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...