The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মহাশূন্যে বাড়ি বানাতে সময় লাগবে মাত্র ১৫ বছর!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মহাশূন্যে বাড়ি বানানোর বিষয়টি সাম্প্রতিক সময় বেশ জোরে সোরেই শোনা যাচ্ছে। এবার সেই বিষয়টি উঠে এলো সংবাদ মাধ্যমগুলোতে। বলা হয়েছে, মহাশূন্যে বাড়ি বানাতে আর সময় লাগবে মাত্র ১৫ বছর!

মহাশূন্যে বাড়ি বানাতে সময় লাগবে মাত্র ১৫ বছর! 1

এক সময় মহাশূন্যে বাড়ি বানানোর বিষয়টিকে আমরা আকাশকুসুম চিন্তা মনে করতাম। কিন্তু কিছুদিন পর হয়তো এটাও সম্ভব হয়ে যাবে। ফিনল্যান্ডের এক পদার্থবিদ জানিয়েছেন, আর বেশিদিন নয়, মাত্র ১৫ বছর পরেই এই সুযোগ পাবেন মানবজাতি। অর্থাৎ ২০৩৬ সাল নাগাদ মহাশূন্যে বসবাস শুরু করতে পারবে মানুষ।

এই বিষয়ে ফিনল্যান্ডের পদার্থবিদ পেকা জানহুনেন বলেছেন যে, মানবজাতি আর মাত্র ১৫ বছরের মধ্যেই স্পেস মেগাসিটির বাসিন্দা হতে পারবেন।

বিজ্ঞানীরা অনেক দিন ধরেই মহাশূন্যে মানুষের বসবাসের প্রকল্প নিয়ে কাজ করে চলেছেন। এ ক্ষেত্রে মূলত চাঁদ ও মঙ্গল গ্রহের নামই উঠে আসে। তবে নতুন জায়গার নাম তুলে এনে চমকে দিয়েছেন পেকা। তিনি পৃথিবী থেকে ৩২৫ মিলিয়ন মাইল দূরের ‘সেরেস’ নামে এক বামনগ্রহের কথাও উল্লেখ করেছেন। তিনি এই শহরের এক নকশাও ইতিমধ্যেই তৈরি করে ফেলেছেন।

পেকা জানিয়েছেন, সেই শহরের একেকটি ভাসমান ফ্ল্যাটে ৫০ হাজার মানুষ বসবাস করতে পারবেন। গোলাকার এই ফ্ল্যাটগুলি মাধ্যাকর্ষণের টান এড়িয়ে শূন্যের উপর ভাসবে। চৌম্বকীয় ক্ষেত্র দ্বারা পরস্পরের সঙ্গে যোগ থাকবে বলে এরা অন্যত্র ছিটকেও যাবে না।

মঙ্গল ও চাঁদ বাদ দিয়ে ‘সেরেস’কে কেনো বেছে নেওয়া হলো সে প্রশ্নে পেকা জানিয়েছেন, এই গ্রহটির জলবায়ু মূলত নাইট্রোজেন-সমৃদ্ধ। পৃথিবীর অনুরূপ জলবায়ু পাওয়া যেতে পারে সেরেসে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...