The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মুখের মেদ যখন আপনার সমস্যা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মুখের মেদ নিয়ে অনেকেই দুশ্চিন্তা করেন। কারণ সাধারণ মেটের মেদ নিয়েই বেশি আলোচনা করা হয়ে থাকে। তবে আজ রয়েছে মুখের মেদ সম্পর্কে আলোচনা।

মুখের মেদ যখন আপনার সমস্যা 1

যাদের শরীরের থেকে মুখে মেদ বেশি থাকে। গাল দুটো কিছুটা ফোলা ফোলা দেখা যায়। যা দেখতে একেবারেই ভালো লাগে না। মুখের এই মেদ নিয়ে পড়তে হয় নানা রকম বিব্রতকর অবস্থায়। শরীরকে ফিট করার জন্য যেমন প্রয়োজন রয়েছে ব্যায়ামের, ঠিক তেমনি মুখের সুন্দর গঠনের জন্যও প্রয়োজন কিছু ফেশিয়াল ওয়ার্কআউটের। বিভিন্ন কারণে মুখে মেদ জমতেই পারে। এর মধ্যে আবার অন্যতম কিছু কারণও রয়েছে। জেনে নেওয়া যাক সেইসব কারণ। যদি এইগুলো পরিহার করতে পারেন তাহলে মুখের মেদ সমস্যা তখন থাকবে না।

# পুষ্টিকর খাবারের অভাবে মুখে মেদ জমতে পারে।
# লবণ বেশি খাওয়ার কারণে এটি হতে পারে।
# অনেক সময় পানি শূন্যতার কারণে মুখে মেদ জমতে পারে।
# মদ্যপানে অভ্যাসের কারণেও মুখে মেদ জমতে পারে।
# হাইপোথাইরয়েডিজম বা থাইরয়েড হরমোনের অভাব হলেও মুখে মেদ জমতে পারে।
# ভিটামিন সি ও বিটা-ক্যারোটিনের অভাব হলেও মুখে মেদ জমতে পারে।
# আবার অনেক সময় বংশগতির কারণেও মুখে মেদ জমতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, সাধারণত ডায়েট করে ওজন কমানো গেলেও মুখের মেদ কিন্তু কমানো সম্ভব হয় না। মুখে মেদ কমানোর জন্য প্রয়োজন হয় ব্যায়ামের। মুখের চর্বি কমাতে সাহায্য করে এমন একটি ব্যায়াম হলো চিন এন্ড জ টোনার, যেটি ইউটিউবে দেখে নিতে পারেন। নিয়মিত এই ব্যায়ামটি করার ফলে দুই সপ্তাহের মধ্যে মুখের চর্বি অনেকখানিই কমে যাবে। আর তখন আপনার মুখমণ্ডল তখন হয়ে উঠবে মোহনীয়।

কয়েকটি মুখের ব্যায়াম :

# প্রথমে সোজা হয়ে দাঁড়াতে হবে। এরপর মাথাটি পিছনের নিয়ে নিয়ে যান।

# এখন মাথা পিছনে থাকা অবস্থায় নিচের চোয়ালটি সামনের দিকে আনুন।

# এভাবে আপনি ১০ পর্যন্ত গণনা করুন।

# এরপর মাথা নামিয়ে ফেলুন।

# তারপর আস্তে আস্তে মাথা পিছনের দিকে হেলিয়ে নিয়ে যান। এখন আস্তে আস্তে সামনের দিকে নিয়ে আসুন। এভাবে অন্তত ২০ বার করুন। মাথা ও ঘাড় যেনো সমান থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। খেয়াল রাখবেন ঘাড় যেনো কোনো অবস্থাতেই বাঁকা হয়ে না যায়।

# এটি ২০ বার করা হয়ে গেলে আস্তে করে মাথাটি নামিয়ে তারপর সোজা করে রাখুন।

# এখন আপনি আবার মাথা পিছনের দিকে নিয়ে যান এবং আপনার নিচের চোয়াল দিয়ে ওপরে আপনার ঠোঁটটি ঢেকে দিন।

# ঠিক এভাবে ১ হতে ১০ পর্যন্ত গণনা করুন।

# তারপর মাথা আস্তে আস্তে করে নামিয়ে রাখুন।

# এখন আবার ঘাড় ও মাথা সোজা রেখে মাথা আস্তে আস্তে করে পিছনে ও আস্তে আস্তে সামনের দিকে নিয়ে আসতে থাকুন।

# এভাবে অন্তত ২০ বার করুন।

এটি আপনার গালের মেদ যেমন কমাবে সেইসঙ্গে ডাবল চিনও কমিয়ে থাকে। এটি নিয়মিত করলে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পেয়ে যেতে পারেন মেদহীন মুখ। যা আপনার শরীরের সঙ্গে সত্যিই মানান সাই।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...