The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ত্বকের রঙ ফর্সা করতে যা করবেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ত্বক নিয়ে আমরা অনেক কিছুই করে। ত্বকের রঙ আরও একটু ফর্সা করতে আমরা অনেক কিছুই করি। তবে কিছু পদ্ধতি রয়েছে যে গুলোর মাধ্যমে ত্বকের রঙ ফর্সা করতে পারবেন খুব সহজেই।

ত্বকের রঙ ফর্সা করতে যা করবেন 1

কীভাবে ত্বক ফর্সা করবেন? প্রতিদিন রোদে পুড়ে আমাদের ত্বক আরও কালো হয়ে যায়। তবে সেজন্য বেশি চিন্তা করতে হবে না, ত্বকের রঙ ফর্সা করতে চাইলে প্রতিদিন সকালে ছোট্ট একটি রুটিন মেনে চলতে হবে। মাত্র ৭ দিনে লক্ষ্য করলেই দেখতে পারবেন পার্থক্য, ত্বকের রঙটা হয়ে উঠবে উজ্জ্বল এবং আরও প্রাণবন্ত। ১ মাস টানা মেনে চললে দারুণ উজ্জ্বল ও ফর্সা হয়ে উঠবে আপনার রঙ।

# প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠেই এক গ্লাস উষ্ণ পানি খাবেন খালি পেটে। চাইলে সামান্য মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। এক গ্লাস উষ্ণ পানি কেবল ত্বকই নয়, আপনার দেহকেও সতেজ করে তুলবে। আপনার পরবর্তী রূপচর্চার জন্যও ত্বককে প্রস্তুত করবে।

# আপনার মুখে ভাপ নিন। একটি হাঁড়িতে গরম পানি নিয়ে সেই বাষ্প মুখে লাগাতে হবে কয়েক মিনিট। খুব বেশি কাছ থেকে বাষ্প লাগাবেন না। আবার খুব বেশি উত্তাপও যেনো না লাগে। মুখে ভাপ দেওয়া হলে পরিষ্কার তুলো দিয়ে মুখ মুছে নিতে হবে।

# ফেস মাস্ক ব্যবহার করুন। একটি টমেটো নিতেহবে। টমেটোটি মাঝ থেকে কেটে দুভাগ করে ভেতরের পাল্প সবটুকু বের করে নিতে হবে। এর সঙ্গে দিন আধা চামচ লেবুর রস, এক টেবিল চামচ কাঁচা দুধ, সামান্য পরিমাণ মধু। সম্ভব হলে এক টেবিল চামচ শসার রসও দিতে পারেন। লেবু এবং টমেটো ন্যাচারাল ব্লিচ হিসাবেই কাজ করবে। দুধ যোগাবে ময়েশ্চার। মধু দূর করবে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ এবং শসা কমাবে অতিরিক্ত তেল চর্বি। এই ফেস মাস্কটি মুখে এবং গলায়-হাতে বা অন্যান্য জায়গায় মাখুন। ২০/৩০ মিনিট রাখুন। এবার ধুয়ে ফেলুন ঠাণ্ডা পানি দিয়ে। মুখ মুছে তারপর হালকা ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের কাপড়ের মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...