বহুল প্রতীক্ষিত থ্রি-জি নিলাম সম্পন্ন: অক্টোবরেই ঢাকায় থ্রি-জি সংযোগ

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ ২১০০ ব্যান্ডের মোট ৪০মেগাহার্টজ তরঙ্গের মাঝে গ্রামীণফোন কিনে নিয়েছে সব চেয়ে বেশী সংখ্যক তরঙ্গের প্যাকেজ ১০ মেগাহার্জ তরঙ্গ। বাংলালিংক, এয়ারটেল ও রবি প্রত্যেকে ৫ মেগাহার্জ তরঙ্গের প্যাকেজ পেয়েছে।


3g1-600x392

রোববার সকালে রাজধানীর রূপসীবাংলা হোটেলের বলরুমে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) আয়োজনে এ নিলাম শুরু হলে দেশের বেসরকারি মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, এয়ারটেল ও রবি এতে অংশ নেয়। আরেক বেসরকারি মোবাইল অপারেটর সিটিসেল নিলামে অংশ নেয়নি।

সরকারি সংশোধিত থ্রি-জি লাইসেন্স নীতিমালার আওতায় ৪টি বেসরকারি মোবাইল সেবাদাতা অপারেটর লাইসেন্স পেতে পারে সে হিসেবে মোট চারটি অপারেটর নিলামে অংশ নেয়ায় চার অপারেটরই থ্রি-জি লাইসেন্স পেয়েছে। অপরদিকে সরকারি প্রতিষ্ঠান টেলিটক আগে থেকেই থ্রি-জি সেবা দিয়ে আসছে। ফলে আগে থেকেই তাঁদের লাইসেন্স পাওয়ার বিষয়টি নির্ধারিত ছিল।

গ্রামীণফোন সবচেয়ে বেশী তরঙ্গের প্যাকেজ ১০ মেগাহার্জ তরঙ্গ কিনে নিয়েছে ২১০ মিলিয়ন ডলারে! অপরদিকে বাকী তিন অপারেটর, বাংলালিংক, এয়ারটেলরবি প্রত্যেকে ১০৫ মিলিয়ন ডলারে ৫ মেগাহার্জ তরঙ্গের প্যাকেজ পেয়েছে।

বিটিআরসি সর্বমোট পাঁচ অপারেটরের কাছে ৩৫ মেগাহার্জ তরঙ্গ নিলামে বিক্রি করতে পেরেছে সর্বমোট ৭৩৫ মিলিয়ন ডলারে!

বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের ইচ্ছামাফিক ফোর-জি তে উন্নীত করার সুযোগ পাবেন। এর জন্যে নতুন নীতিমালা বা লাইসেন্সের প্রয়োজন হবে না। অপরদিকে গ্রামীণ ফোন জানিয়েছে তাঁরা অক্টোবরের শেষ নাগাদ অন্তত ঢাকা মহানগরে বাণিজ্যিক থ্রিজি পরিষেবা চালু করবে।

এদিকে নিলামে কিনে নেয়া তরঙ্গের মূল্যের ৬০% সকল মোবাইল অপারেটরকে আগামী অক্টোবরের ৮ তারিখের মাঝেই পরিশোধ করতে হবে এবং বাকী টাকা পরবর্তী ১৮০ দিনের মাঝে পরিশোধ করতে হবে।

দেশের থ্রি-জি লাইসেন্সের এই নিলাম অর্থের দিক দিয়ে দেশের সর্বোচ্চ নিলাম, এর আগে এতো বিশাল অর্থ মূলের কোন নিলাম দেশে হয়নি।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...