The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বাংলাদেশেও পালিত হয়েছে মহা-নায়িকা সুচিত্রা সেনের জন্মদিন

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের ৮৪তম জন্মদিন বাংলাদেশেও অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে পালিত হয়েছে।


s sen_Fotor_Collage

১৯৩১ সালের ৬ এপ্রিল জন্মগ্রহণ করেন সুচিত্রা সেন। তার জন্ম বাংলাদেশের পাবনা জেলায় নানার বাড়িতে। তার শৈশব ও কৈশোর কাটে গোপালপুরে। সেখানে তার পৈতৃক ভিটা ছিল।

সুচিত্রা সেনের জন্মদিন উপলক্ষে ‘সুচিত্রা সেন স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদ’ পাবনা টাউন গার্লস হাইস্কুলে জন্মদিন পালন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সুচিত্রার প্রথম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মহাকালী পাঠশালা মূলত এখনকার এই স্কুল।

শুরুতে সুচিত্রার আত্মার শান্তি কামনা করে সকলে এক মিনিট নীরবতা পালন করে। অতঃপর তার স্মরণে চলে আলোচনা সভা। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা পরিষদ প্রশাসক এবং সুচিত্রা সেন স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদের সভাপতি এম সাইদুল হক চুন্নু। এতে বক্তব্য প্রদান করেন অধ্যাপক কামরুজ্জামান, ডা. রামদুলাল ভৌমিক প্রমুখ। তারা বক্তিতায় সুচিত্রা সেনের পৈতৃক বাড়িটি পুনরুদ্ধারের জোরাল দাবি জানান। সবশেষে কেক কেটে পালন করা হয় প্রিয় মানুষটির জন্মদিন।

timthumb_Fotor_Collage

এছাড়া শিল্পাঙ্গন আয়োজন করে ‘চিত্রে সুচিত্রা সেন’ নামে চিত্র প্রদর্শনীর। এতে অংশগ্রহণ করেন ৩০ জন নবীন ও প্রবীণ শিল্পী। শিল্পীরা তাদের অসাধারণ তুলির আঁচড়ে ফুটিয়ে তুলেছেন সুচিত্রা সেনের নানান অভয়ব। এতে স্থান পেয়েছে ৬২টি চিত্রকর্ম। অসাধারণ এই চিত্রগুলো নিয়ে আয়োজন করা প্রদর্শনীটি চলছে ধানমণ্ডির ৩০ নম্বর সড়কের ৭ নম্বর বাড়ির তৃতীয় তলায় গ্যালারি শিল্পাঙ্গনে এবং চলবে ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত। অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন কথাশিল্পী সেলিনা হোসেন

untitled-3_51117

দেশের আনাচে-কানাচে আরো অনেক জায়গায় পালিত হয় সুচিত্রা সেনের। তিনি জন্মগ্রহণ করেছিলে এদেশের পাবনায়। তার বাবা করুনাময় দাশগুপ্ত ছিলেন পাবনা পৌরসভার স্যানিটারি ইন্সপেক্টর। নবম শ্রেণিতে পড়া’রত অবস্থায় তার পরিবার দেশ ত্যাগ করে। যদিও তিনি পশ্চিমবঙ্গের, তবু তার শেকড় এদেশে। তাইতো এদেশের মানুষ তাকে এত ভালবাসে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...